পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


so wfo svoog মহুয়া দুরন্ত নাচের নেশা পাওয়া । নদীপ্রান্তে তরুগুলি ওই দেখ আছে কান পেতে, ওই সূর্য চাহে শেষ চাওয়া । নিবি তোরা তীৰ্থবারি সে অনাদি উৎসের প্রবাহে বর্ণে গন্ধে রূপে রিসে, তরঙ্গিত সংগীত উৎসাহে GFS SCess NE SNSB হয়েছে স্বতন্ত্র চিরন্তন । প্ৰত্যহের ছিড়েছে বন্ধন । ” প্ৰাণদেবতার হাতে জয়টিকা পরেছে। সে ভালে, সূৰ্যতারকার সাথে স্থান সে পেয়েছে সমকালে, সৃষ্টির প্রথম বাণী যে প্ৰত্যাশা আকাশে জাগালে তাই এল করিয়া বহন । বন্দিনী তুমি বনের পুব পবনের সাথি, বাদল মেঘের পথে তোমার ডানার মাতামাতি । ওগো পাখি, বা ধনহারা পাখি, ইথাচার কোণে এই বিজনে আপন মনে থাকি । হায় অজানা, জানি না সে উধাও তুমি কোন আকাশে, কোন তামালের কাননতলে মধ্যদিনের তাপে কোন রঙনে। রঙিন তোমার পাখা ? তোমার সোনার বরানখানি ভাবনাতে মোর আঁকা । ওগো পাখি, বা ধনহারা পাখি, মুক্তরূপের ধ্যানের ছায়ায় মগ্ন আমার আঁখি । বন্দী মনের বদ্ধ ডানা, চতুর্দিকে কঠোর মানা, তোমার সাথে উড়ে চলার মিলন মাগি মনেশূন্যে সদাই গান ফেরে। তাই অসীম অন্বেষণে । গান গাওয়া মোর সেই মিলনের খেলা, তোমার গানের ছন্দে আমার স্বপন-পাখা মেলা । S