প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૨.૬° রবীন্দ্র-রচনাবলী (মৃদুহাস্তে ) নির্মল আকাশে একটুখানি মালিন্য দেখছি যেন। কী হয়েছে বলে। দেখি । নির্মল । (ক্ষুব্ধস্বরে ) এতদিন পরে আমাকে তোমাদের চিরকুমার-সভা থেকে বিদায় দিচ্ছ কেন । আমি কী করেছি। o চন্দ্রবাবু । ( আশ্চর্য হইয়া ) চিরকুমার-সভা থেকে তোমাকে বিদায় ? তোমার সঙ্গে সে সভার যোগ কী । নির্মলা । দরজার আড়ালে থাকলে বুঝি যোগ থাকে না? অন্তত সেই যতটুকু যোগ তাই বা কেন যাবে। ബ= চন্দ্রবাবু নিৰ্মল, তুমি তো এ সভার কাজ করবে না, যারা কাজ করবে তাদের সুবিধার প্রতি লক্ষ রেখেই— নির্মলা । আমি কেন কাজ করব না । তোমার ভাগ্নে না হয়ে ভাগ্রী হয়ে জন্মেছি বলেই কি তোমাদের হিতকার্যে যোগ দিতে পারব না। তবে আমাকে এতদিন শিক্ষা দিলে কেন । নিজের হাতে আমার সমস্ত মন প্রাণ জাগিয়ে দিয়ে শেষকালে কাজের পথ রোধ করে দাও কী বলে । চন্দ্রবাবু নিৰ্মল, এক সময়ে তো বিবাহ করে তোমাকে সংসারের কাজে প্রবৃত্ত হতে হবে, চিরকুমার-সভার কাজ-— নির্মল । বিবাহ আমি করব না । চন্দ্রবাবু। তবে কী করবে বলে । নির্মলা । দেশের কাজে তোমার সাহায্য করব । চন্দ্রবাবু আমরা তো সন্ন্যাসত্রত গ্রহণ করতে প্রস্তুত হয়েছি। নির্মলা । ভারতবর্ষে কি কেউ কখনো সন্ন্যাসিনী হয় নি। চন্দ্রমাধববাবু নিরুত্তর হইয় দাড়াইয়া রহিলেন মামা, যদি কোনো মেয়ে তোমাদের ব্রত-গ্রহণের জন্যে অস্তরের সঙ্গে প্রস্তুত হয় তবে প্রকাশ্যভাবে তোমাদের সভার মধ্যে কেন তাকে গ্রহণ করবে না । আমি তোমাদের কৌমাৰ্যসভার কেন সভ্য না হব। চন্দ্রবাবু (দ্বিধাকুষ্ঠিতভাবে ) অন্ত র্যার সভ্য আছেন— নির্মল যারা সভ্য আছেন, যারা ভারতবর্ষের হিতব্ৰত নেবেন, যারা সন্ন্যাসী হতে যাচ্ছেন, তার কি একজন ব্রতধারিণী স্ত্রীলোককে অসংকোচে নিজের দলে গ্রহণ করতে পারবেন না। তা যদি হয় তা হলে তারা গৃহী হয়ে ঘরে রুদ্ধ থাকুন, তাদের দ্বারা কোনো কাজ হবে না । _ . -