প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৮৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরকুমার-সভা २br> রসিক । তা বেশ, ভাববেন, কিন্তু বোধ হয় ভাবা ছাড়া আর কোনো কষ্ট করতে হবে না। শ্ৰীশ। আচ্ছা রসিকবাবু, আমাদের কষ্ট স্বীকার করতে দিতে আপনার এত আপত্তি হচ্ছে কেন । বিপিন । এদের জন্যে যদিই আমাদের কোনো কষ্ট করতে হয় সেটা যে আমরা সম্মান বলে জ্ঞান করব । শ্ৰীশ। দু দিন ধরে, রসিকবাবু, বেশি কষ্ট পেতে হবে না বলে আপনি ক্রমাগতই আমাদের আশ্বাস দিচ্ছেন— এতে আমরা বাস্তবিক দুঃখিত হয়েছি। রসিক । আমাকে মাপ করবেন— আমি আর কখনো এমন অবিবেচনার কাজ করব না। আপনারা কষ্ট স্বীকার করবেন । শ্ৰীশ । আপনি কি এখনও আমাদের চিনলেন না | রসিক। চিনেছি বৈকি, সেজন্যে আপনার কিছুমাত্র চিন্তিত হবেন না। কুষ্ঠিত নৃপবালা ও নীরবালার প্রবেশ শ্ৰীশ । ( নমস্কার করিয়া) রসিকবাবু, আপনি এদের বলুন আমাদের যেন মার্জন করেন । علي چ বিপিন । আমরা যদি ভ্ৰমেও ওঁদের লজ্জা বা ভয়ের কারণ হই তবে তার চেয়ে দুঃখের বিষয় আমাদের পক্ষে আর কিছুই হতে পারে না, সেজন্যে যদি ক্ষমা না করেন তবে— রসিক । বিলক্ষণ ! ক্ষমা চেয়ে অপরাধিনীদের অপরাধ আরও বাড়াবেন না । এদের অল্প বয়স, মান্য অতিথিদের কিরকম সম্ভাষণ করা উচিত তা যদি এরা হঠাৎ ভুলে গিয়ে নতমুখে দাড়িয়ে থাকেন তা হলে আপনাদের প্রতি অসম্ভাব কল্পনা করে এদের আরও লজ্জিত করবেন না। নৃপদিদি, নীরদিদি, কী বল ভাই । যদিও এখনও তোমাদের চোখের পাতা শুকোয় নি তবু এদের প্রতি তোমাদের মন যে বিমুখ নয় সে কথা কি জানাতে পারি । নৃপ ও নির লজ্জিত নিরুত্তর না, একটু আড়ালে জিজ্ঞাসা করা দরকার । ( জনাস্তিকে ) ভদ্রলোকদের এখন কী বলি বলে তো ভাই। বলব কি, তোমরা যত শীঘ্র পার বিদায় হও। নীরবালা । ( মৃদুস্বরে ) রসিকদাদা, কী বক তার ঠিক নেই, আমরা কি তাই বলেছি— আমরা কি জানতুম এরা এসেছেন। 〉や|〉。