প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ষোড়শ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী কাচা বয়সের জাদু লাগে ওদের চোখে, মন যায় না সত্যের খোজে, আমরা বিকিয়ে যাই মরীচিকার দামে । কথাটা কেন উঠল তা বলি । মনে করো তার নাম নরেশ ! সে বলেছিল কেউ তার চোখে পড়ে নি আমার মতো । এতবড়ো কথাটা বিশ্বাস করব যে সাহস হয় না, ন করব যে এমন জোর কই । একদিন সে গেল বিলেতে । , চিঠিপত্র পাই কখনো বা । মনে মনে ভাবি, রাম রাম ! এত মেয়েও আছে সে দেশে, এত তাদের ঠেলাঠেলি ভিড় ! আর তারা কি সবাই অসামান্য— এত বুদ্ধি, এত উজ্জ্বলতা। আর তারা সবাই কি আবিষ্কার করেছে এক নরেশ সেনকে স্বদেশে যার পরিচয় চাপা ছিল দশের মধ্যে । গেল মেলের চিঠিতে লিখেছে লিজির সঙ্গে গিয়েছিল সমূত্রে নাইতে । বাঙালি কবির কবিতা ক’ লাইন দিয়েছে তুলে, সেই যেখানে উর্বশী উঠছে সমুদ্র থেকে । তার পরে বালির পরে বসল পাশাপাশি— সামনে দুলছে নীল সমুদ্রের ঢেউ, * আকাশে ছড়ানো নির্মল সূর্যালোক । , লিজি তাকে খুব আস্তে আস্তে বললে, ‘এই সেদিন তুমি এসেছ, দুদিন পরে যাবে চলে ; , , কিছুকের দুটি খোলা, মাঝখানটুকু ভর থাক