পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


টাকাও যা, ধূলাও তা । >> AAAAAA AAAA AAAA AAAA AAAAS AAAAA ASASASA AAA AAAA AAAAeeMSMMMAMeeeeeeS ہم * লিয়া গিয়াছে। জ্যোৎস্নার আলোক দিকে দিকে ছড়াই৷ পড়িয়াছে। জ্যোৎস্ব মাখিয়া, অঙ্গরাগ বাড়াইয়া, ভাগীরথী ও জলঙ্গী খলখল হাসিতে-হাসিতে সাগর-সখার উদ্দেণ্ডে ৰাবমান হইয়াছে। সকল ঘাটই এখন প্রায় নীরব নিস্তব্ধ। মাঝিরা যে ঘাটে নৌকা বঁধিল, সেই ঘাটে তখনও টাকা লইয়া ধূলাখেলা চলিতেছিল। প্রভাত হইতে সন্ধ্যা পৰ্য্যত্ব তাহার সেই একই খেলা। নৌকা যখন তীরে লাগিল, সে ব্যক্তি তখনও বলিতেছে--"টাকাও যা, ধূলাও তা!" তখনও কি তাহার মুঠার টাকা ফুল্লায় নাই ! তখনও সে জলের ভিতর টাকা চুড়িয়া ফেলিয়া দিতেছে, আর টাকার বদলে বালি কুড়াইয়া লইতেছে। এ কি আশ্চৰ্য্য ব্যাপার । রুক্ষ্ম-কেশ রুগ্ম-বেশ পুরুষের সেই উক্তিতে—“টাকাও যা, ধূলাও তা মসম্ভবনীয় বাক্যে— তৎপ্রতি বসুজের দৃষ্টি আকৃষ্ট হইল। বমুঞ্জ একবার অনেকক্ষণ ষ্ঠাহার প্রতি চাহিয়া রহিলেন । চাহিতে চ{fহতে র্তাহারু মনে হইল,—“বুঝি তগবান আমার প্রতি মুখ তুলিয়। চাহিয়াছেন। ষে মহাপুরুষ ধূল হইতে টাকার স্তষ্ট করিতে পারেন, তিনি নিশ্চয়ই আমার টাক। দ্বিগুণ করিয়া দিতে পারবেন।” এই মনে করির বসুজ ব্যস্ত সমস্তে সেই যাদুকর পুরুষের নিকট উপস্থিত হইলেন ; প্রণতি-পূর্বক কহিগেন,—“ঠাকুর! যখন দেখা দিয়াছেন, তখন আমায় রক্ষা করুন!” যাদুকর পুরুষ নিরুত্তর। তাহার মুখে সেই একই কথা— “টাকাও ধা, ধূলাও তা।” যাদুকর পুরুষকে প্রশ্নোত্তর-দানে পরামুপ দেখিয়া, বসুজ