পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Տ(*Ե- লক্ষণ-সেন । SAMAAA AAAA AAASA SAAAAA AAAA AAAASASASS SAMAAASAAAA নাই! যে পথে অগ্রসর হইয়াছি, সে পথ হইতে কিছুতেই প্রতিনিবৃত্ত হইতে পারি না। র্যাহার জন্য সৰ্ব্বস্ব ত্যাগ করিয়াছি, উহাকে কিসে বঁাচাইতে পারি, ভগবান!—তুমি তাহাৰ উপায় করিয়া দেও।” শোভা উৰ্দ্ধনেত্রে আকাশের পানে চাহিয়া চন্দ্রদেবকে ডাকিয়া কহিলেন,—“হে সুধাকর! তুমি সুধীর আকর। একবিন্দু সুধাদানে রণাহত বীরসিংহের প্রাণরক্ষা কর।” কি জানি কেন, শোভার মনে হইল,- নিশাপতি যেন শোভাৱ কাতর-ক্রদনে কর্ণপাত করিলেন না। তিনি যেন ক্রমে দূরেদূরে - অতি দুরে—পশ্চিম গগন-প্রান্তে মুখ লুকাইলেন। শোভা মনে মনে কহিলেন,-“কলক্ষ্মী চাদ ! নিষ্কলঙ্ক ধীরসিংহের পাশ্বে দাড়াইতে তোমার জ্যোতিঃ স্নান হইল ; তাই বুঝি তুমি মুখ লুকাইলে!” সহসা পূৰ্ব্বাসার দিকে শোভার দৃষ্ট আকৃষ্ট হইল! নবরাগে রঞ্জিত হইয়৷ উষাদেবী শোভাকে যেন অশ্বাসের অভয়-বাণী শুনাইতে অসিলেন । বিহগ-গণের ললিত-তানে শোভা মেন সে আশ্বাস বাণী শুনিতে পাইলেন । আনন্দোৎফুন্ন হৃদৰে শোভা প্রার্থনা জানাইলেন,—“দেবি ! নারী-হৃদয়ের মৰ্ম্মব্যথ। তুমি ভিন্ন অন্তে কি বুঝিতে পারে? আমার করুণ-ক্ৰন্দনে তাই বুঝি সাম্বন দিতে আসিয়াছ!" আশার পুলকে শোক্তার হৃদয় উৎফুল্প হইল । এই সময় সহসা পশ্চাদিক হইতে শোভার কর্ণে ধ্বনি ও হইল,-"কে তুই মা ! এ প্রাস্তরে বসিয়া একাকিনী কি করিতেছিস্ !”