পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বজরায় | }సి বিশ্বেশ্বর পুনরুপি উত্তেজিত-কণ্ঠে কহিলেন,--"আপনার সেই অর্থসম্প২, আপনার সেই পদমর্য্যাদা—সম্মান-সন্ত্রমের বিষয় স্মরণ করুন ! অার স্মরণ করুন,~-সতী-লক্ষ্মীর অশ্রুপাত! কি অবস্থায় রাজা লক্ষ্মণ-সেন তাহাকে গৃহত্যাগনী করিয়াছেন, তাহাও স্মরণ করুন। সেই সকল বিষয় স্মরণ করিয়া কৰ্ত্তব্যাবধারণে প্রস্তুত হউন ৷” ত্ৰিলোচন। -“যাহা কিছু বলিতেছ, সকলই স্মৃতিপটে জাগরুক আছে। কিন্তু আমার আর কি সমর্থ্য আছে ? আমি শর কি করিতে পারি ?" বলবন্ত সিংহ উত্তর দিলেন,—“মনে করুন, আপনার এখন আর কিছুরই অভাব নাই। স্মরণ রাখবেন,-আমাদের সকল সম্পত্তিতেই আপনার পূর্ণ অধিকার। যত টাকা চাই, আমরা দিব ; আপনি কি চান বলুন !” টাকার কথায় ত্রিলোচনের মনটা প্রফুল্প হইল। আবাৱ যেন কাণের কাছে, ‘ঝন ঝন ঝনাং' শব্দ বাঞ্জিয়া উঠিল। এলোচন উত্তর দিলেন,--"আপনাদের দয়ায় সকলই হইতে পারে। কিন্তু আমার দ্বারা আপনাদের কি উদ্দেগু-সিদ্ধির সম্ভাবনা আছে!” “হ-হ-হা!”—হাস্ত করিয়া বলবন্ত সিংহ উত্তর দিলেন,— "আপনি সঙ্গে থাকিলেই আমাদের সকল উদ্দেশু সিদ্ধ হইবে । আপনার অর্থসম্পং আপনি যাহাতে পুনঃপ্রাপ্ত হন, আপনার সহধৰ্ম্মিণীর যাহাতে সন্ধান পাওয়া যায়,—ব্যবস্থা করিয়া দিব।" ত্ৰিলোচন পুনরায় কহিলেন—“কিন্তু আমি আপনার কি উপকারে অসিব ?