পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সমস্যা । ఫిసెసె AMAMMASAMA AAMAAA AAAA AAAA AAAAS AAAAA AAAAJJJ SAAAAA SAAAAAS সাধু।–“সত্য তত্ত্ব প্রচার কর । ভেদাভেদের কুয়াসাজাল ছিন্ন করিয়া দাও ! হিন্দুও যা, মুসলমানও তা ;—আমরা সকলেই সেই সৰ্ব্বমঙ্গলময়ের স্বষ্ট সামগ্ৰী ! কেন আমাদের মধ্যে ভেদবুদ্ধি আসে ?” রঘুদেব কহিলেন,—“সকলেই বলিতেছেন, মুসলমানের পদার্পণে হিন্দুর দেশ কলুষিত হইবে।” সাধু পুরুষ ‘হে হো’ করিয়া হাসিয়া উঠিলেন,—“ত্রান্ত ! পৃথ্বীমাতা কি কখনও কলুষিত হন । যাহার ক্রোড়ে ঋষিমহর্ষির পুণ্যাশ্রম শান্তি-নিকেতন তপোবন শোভা পাইতেছে, তাহারই ক্রোড়ে ব্যাস্ত্ৰ-ভয় কাদিপূর্ণ মহারণ্য বিরাজমান রহিয়াছে। নরহন্ত দস্থ্যও তাহার বক্ষে আশ্রয় লইয়া আছে ; আবার পুণ্যাত্মা মহাপুরুষও তাহার বক্ষে বিরাজমান রহিয়াছেন। বিষ ও অমৃত, বিষ্ঠা ও চন্দন,—সকলই যাহার সমান আদরের সামগ্ৰী ; ভ্রান্ত --মুসলমানের স্পর্শে তিনি কি কখনও কলুষিত হন ? তোমরা বিশাল সাম্রাজ্যের কর্ণধার হইয়াও—তাশেষ বুদ্ধিজীবী বলিয়া পরিচিত থাকিয়াও,—জনসাধারণের এ ভ্রম ংস্কার দূর করিতে পারলে না!” রঘুদেব।—“আপনি যাহা বলিতেছেন, সকলই সত্য। কিন্তু আপনার যদি এ সকল তত্ব প্রচার করেন, আপনাদের মুখে এ সকল কথা শুনিতে পাইলে, দেশ শান্ত হইতে পারে।” সংগ্রাম-সিংহ সাধুপুরুষকে লক্ষ্য করিয়া কহিলেন,—“সাধুসন্ন্যাসিগণই আবার বিপরীত বুঝাইতেছেন। অল্পক্ষণ পূৰ্ব্বে ভৈরবনাথের আশ্রম হইতে আনন্দস্বামী আসিয়াছিলেন। তিনি ঠিক বিপরীত কথা বলিয়া গেলেন। আমাদের নিকট সাধু