পাতা:লক্ষণ সেন - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


vყ • লক্ষণ-সেন আসিবেন,--ইহাই সঙ্কল্প ছিল। মন্দির-প্রাঙ্গণে প্রবেশ করিয়৷ প্রথমেই তাহারা দেখিলেন,—“চত্বরের এক দিকে এক কোণে কে একজন শুইয়া রহিয়াছে। তাহার হস্তপদমুখ সমস্তই গৈরিক বসনে আবৃত। সে যে কে, কিছুই তাহারা জানিতে পারিলেন না ;–কিছুই তাহারা বুঝিতে পারিলেন না। কিন্তু সেইখানে সেই অজ্ঞাত অপরিচিত নিদ্রিত ব্যক্তির সন্নিকটে পদ্মাবতীকে বসাইয়া রাখিয়া পিতামাত প্রত্যাবৃত্ত হইলেন । আর ফিরিয়া চাহিতে পারিলেন না ; অন্য কথাও আর কহিতে পারিলেন না ; কেবল কহিলেন,-“হে জগন্নাথ ! হে অনাথের নাথ ! তোমার চরণে আমাদের প্রাণপুতলি পদ্মাবতীকে সমর্পণ করিয়া চলিলাম। দেখো তুমি-রক্ষা ক'রে তারে।” পিতামত চলিয়া গেলেন । পদ্মাবতী সেই নিদ্রিত অপরিচিত ব্যক্তির পদপ্রান্তে বসিয়া রহিলেন ।

  • * *

পঞ্চদশ পরিচ্ছেদ । -سسس ساجهه به سیستم উদ্বেগে । সঙ্কল্পমত যথারীতি পদ্মাবতীকে জগবন্ধুর পাদপদ্মে সমর্পণ করিয়া পিত্তামাতা উভয়েই প্রাঙ্গণের বাহিরে আসিলেন। কিন্তু এতক্ষণ হৃদয়ের যে দৃঢ়তা রক্ষা করিয়াছিলেন, এখন তাহারা সে দৃঢ়তা আর রক্ষ। করিতে পাবিলেন না। উদ্বেগের প্রবল বন্যায় সে বালির বধ ভাঙ্গিয় গেল ।