পাতা:লালন-গীতিকা.djvu/১৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লালন-গীতিকা জলময় তার চতুৰ্ভিতি মধ্যে খানা ॥ তিল পরিমাণ যায়গা সে যে, হদো রঙ তাহার মাঝে, কালায় শোনে অন্ধ দেখে হাংড়ার নাচনী ॥ যে গঠিল এ রঙমহল, না জানি তার রঙটি কেমন, সিরাজ সাই কয়, নাইরে লালন তার তুলনা ৷ >QS) দিল-দরিয়ায় ডুবে দেখ না। অতি অজান খবর যাবে জানা ॥ আলখানার শহর ভারি, তাহে আজব কারিগুরি, উত্তরায় পানি নাই ভিটে ডোবে ভাই, কি প্রতারি এ কারখানা ॥ ত্রিবেণীর পিছন ঘাটে, বিনে হাওয়ায় সোজা ছোটে, ও সে বোবায় কথা কয় কালায় শুনতে পায়, আধলাতে পরখ করছে সোনা ॥ কহিবার যোগ্য নয় সে কথা সাগরে ভাসে জগৎ-মাতা লালন বলে, সে মার উদরে পিতা জন্মে পত্নীর দুগ্ধ খেলে সে না ৷