পাতা:লালন-গীতিকা.djvu/১৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লালন-গীতিকা שא ס כי Ꮌ ©Ꮤ% যে জন হাওয়ার ঘরে ফঁাদ পেতেছে । ঘুচেছে তার মনের আঁধার সে যে দিক ছাড়া নিরিখ বেঁধেছে ॥ হাওয়া দমে বেঁধে ভেলা, উধের নলে চলা-ফেরা, বহু সাধন-গুণে কেউ দেখেছে। হাওয়া দ্বারে দম কুঠরি, মাঝখানে অটল-বিহারী, শূন্ত বিহার শূন্ত পুরী কলকাঠি তার ব্রহ্মন্ধারে আছে ৷ মন ছুটে প্রেম-ফঁাসি করে, জান শিকারী শিকার ধরে, ফকির লালন কয়, অতি বিনয় ক’রে, সে ভাব ঘটলো না মোর হৃদয়-মাঝারে Ꮌ © Ꮔ কয় দমেতে বাজে ঘড়ি করবে ঠিকানা। কয় দমে আজ দিন রজনী চলছে বল না ৷ দেহের খবর যে জন করে অনেক রূপ সে দেখতে পারে, অনেক দম হাওয়ায় চলেরে কি আজব কারখানা ॥ দেহ-তলায় ঘড়ি ঘোরে, শব্দ হয় শব্দের ঘরে, ও আর কলকাঠি মুকুলের দ্বারে দমে আসল চেন ॥