পাতা:লালন-গীতিকা.djvu/৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লালন-গীতিকা ও সে মরার সঙ্গে মরে ভাবের সাগরে ডুবতে যদি পারে সু-ভাবিক তারা । তুগ্ধেতে ননীতে মিশালে সর্বদ মন্থন-দণ্ডে করে আলাদা আলাদা, মনরে, এমনি ভাবের ভাবে স্থধানিধি পাবে মুখের কথা নয়রে সে ভাব করা ॥ অগ্নি যৈছে ঢাকা ভস্মের ভিতরে স্বধা তেমনি আছে গরল হল করে ও কেউ স্থধার লোভে যেয়ে মরে গরল খেয়ে মন্থনের স্থতার না জানে তারা ॥ যে স্তনের তুন্ধ খায়রে শিশু ছেলে জোকে মুখ লাগালে - রক্ত এসে মেলে অধীন লালন বলে, বিচার করিলে কু-রসে স্থ-রসে মেলে সেই ধারা ॥ যে পথে সাই চলে ফেরে তার খবর কে করে । যে * পথে আছে সদায় বিষম কালনাগিনীর ভয় যদি কেউ আজগবি যায় ওমনি উঠে ছে৷ মারে । পলক ভ’রে বিষ ধেয়ে তার উঠে ব্রহ্মরন্ধে, রে ॥ ১-১ জোকের মুখে তথা ২ সে