পাতা:লিপিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৩৯

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
১২১
পুনরাবৃত্তি

 অধ্যাপক রাগ করে’ বললেন, “কপিল কণাদের নামে শপথ করে’ বলচি আর কখনো স্ত্রীলোক ছাত্র নেব না। বেদবেদান্তের পার পেয়েচি, স্ত্রীজাতির মন বুঝতে পারলেম না।”

 একদা মন্ত্রী এসে রাজাকে বললে, “ভবদত্তর বাড়ি থেকে কন্যার সম্বন্ধ এসেচে। কুলে শীলে ধনে মানে তারা অদ্বিতীয়। মহারাজের সম্মতি চাই।”

 রাজা জিজ্ঞাসা করলেন, “কন্যা কি বলে?”

 মন্ত্রী বললে, “মেয়েদের মনের ইচ্ছা কি মুখের কথায় বোঝা যায়?”

 রাজা জিজ্ঞাসা করলেন, “তার চোখের জল আজ কি রকম সাক্ষ্য দিচ্চে?”

 মন্ত্রী চুপ করে রইল।

 রাজা তার বাগানে এসে বসলেন। মন্ত্রীকে বললেন, “তোমার মেয়েকে আমার কাছে পাঠিয়ে দাও।”

 রুচিরা এসে রাজাকে প্রণাম করে দাঁড়ালে।

 রাজা বললেন, “বৎসে, সেই রামের বনবাসের খেলা মনে আছে?”

 রুচিরা স্মিতমুখে মাথা নীচু করে দাঁড়িয়ে রইল।