পাতা:লিপিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সওগাত পূজোর পরব কাছে। ভাণ্ডার নানা সামগ্রীতে ভরা। কত বেনারসী কাপড়, কত সোনার অলঙ্কার ; জার ভাও ভরে ক্ষীর দই, পাত্র ভরে মিষ্টান্ন । ম। সওগাত পাঠাচ্ছেন । বড় ছেলে বিদেশে রাজসরকারে কাজ করে ; মেজো ছেলে সওদাগর, ঘরে থাকে না ; আর কয়টি ছেলে ভাইয়ে ভাইয়ে ঝগড়া করে পৃথক পৃথক বাড়ি করেচে ; কুটুম্বর আছে দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে । কোলের ছেলেটি সদর দরজায় দাড়িয়ে সারাদিন ধরে দেখচে, ভারে ভারে সওগাত চলেচে, সারে সারে দাস দাসী, থালাগুলি রঙ-বেরঙের রুমালে চাকা । দিন ফুরল। সওগাত সৰ চলে গেল। দিনের শেষ নৈবেদ্ধের সোনার ডালি নিয়ে সূৰ্য্যাস্তের শেষ আভা নক্ষত্ৰলোকের পথে নিরুজেশ হ’ল । ছেলে ঘরে ফিরে এসে মাকে বললে, “মা, সবাইকে তুই সওগাত দিলি, কেবল আমাকে না ।”