প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/১৮৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পণ্ডিত মশাই ; মতি, প। ফস্কাতে, মন টলতে কতক্ষণ বাছা ? কুঙ্ক সায় দিয়া বলিল, সে ঠিক কথা মা । কুসুম সহসা মুখ তুলিয়৷ ভীষণ ভ্ৰকুটি করিয়া কছিল, তুমি এখানে বসে কি করছ দাদা ! উঠে যাও । খুব খতমত খাইয়া উঠিতে গেল, কিন্তু তাহার শাশুড়ী উষ্ণ হইয়া বলিলেন, দাদাকে ঢাকলেই ত আর লোকের চোখ ঢাকা পড়বে না বাছ ? এই ষে তুমি নদীতে চান করে, ভিজে কাপড়ে চুল এলিয়ে দিয়ে এলে, ও দেখলে মুনির মন টলে কি-না, তোমার দাদাই বুকে হাত দিয়ে বলুক দেখি ? কুষম চেঁচাইয়া উঠিল, তোমার পায়ে পড়ি দাদা, দাড়িয়ে দাড়িয়ে শুনো না—যাও এখান থেকে । তাহার চীৎকার ও চোখ-মুখ দেখিয়া কুঞ্জ শশব্যস্তে উঠিয়া পলাইল । কুষম উনান হইতে তরকারির কড়াটা দুম করিয়া নীচে নামাইয়া দিয়া দ্রুতপদে ঘর হইতে বাহির হইয়া গেল । কুঞ্জর শাশুড়ী মুখ কালি করিয়া বসিয়া রহিলেন । র্তাহার সমকক্ষ কলহ-বীর সংসারে নাই, ইহাই ছিল তাহার ধারণা ; এই সহায়-সম্বলহীন মেয়েটা তাহাকে যে হতভম্ব করিয়া দিয়া উঠিয়া যাইতে পারে, ইহা তিনি স্বপ্নেও ভাবেন নাই । Ե কেন, তাহা না বুঝিলেও সেদিন দাদার শাশুড়ী যে বিবাদ-সঙ্কল্প করিয়াই এখানে আসিয়াছিলেন, তাহাতে কুমুমের সন্দেহ ছিল না । তা ছাড়া, তাহার বলার মর্শটা ঠিক এই রকম শুনাইল, যেন বৃন্দাবন একসময়ে গ্রহণেচ্ছু থাকা সত্বেও কুস্কম বিশেষ কোন গৃঢ় কারণে যায় নাই। সেই গৃঢ় কারণটি সম্ভবত: কি, তাহা তাহার ত অগোচর নাই-ই, বৃন্দাবন নিজেও আভাস পাইয়া সে প্রস্তাব পরিত্যাগ করিয়াছে। এই ইঙ্গিতই কুস্কমকে আমন আত্মহারা করিয়া ফেলিয়াছিল। তথাপি অমন করিয়া ম্বর হইতে চলিয়া যাওয়াটা তাহারো যে ভাল কাজ হয় নাই, ইহা সে নিজেও টের পাইয়াছিল । কুঞ্জর শাশুড়ী সেদিন সারাদিন আহার করেন নাই, শেষে অনেক সাধ্যসাধনায়, অনেক ঘাট-মানায় রাত্রে করিয়াছিলেন । র্তাহার মান রক্ষার জন্ত কুঞ্জ সমস্তদিন ভগিনীকে ভৎসনা করিয়াছিল, কিন্তু রাগারগি, মান-অভিমান সমাপ্ত হুইবার পরেও তাহাকে একবার খাইতে বলে নাই। পরদিন বাটা ফিরিবার পূৰ্ব্বে, কুন্বষ প্ৰণাম כר ל