প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/২০৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পণ্ডিত মশাই বললে তুমি রাগ করবে। খৃষ্টতা ? ঠিক তাই। কেশব, শুধু ইচ্ছা এবং হৃদয় থাকলেই পরের ভালো এবং দেশের কাজ করা যায় না। যাদের ভাল করবে, তাদের সঙ্গে থাকার কষ্ট সহ করতে পার চাই, বুদ্ধি-বিবেচনায় ধর্শ্বে-কর্শ্বে এত এগিয়ে গেলে তারাও তোমার নাগাল পাবে না, তুমিও তাদের নাগাল পাবে না। কিন্তু আর না, সন্ধ্যা হয়, এবার একটু পাঠশালের কাজ করি । কর, কাল সকালেই আবার আসব, বলিয়া কেশব উঠিয়া দাড়াইতেই বৃন্দাবন ভূমিষ্ঠ প্রণাম করিয়া পায়ের ধূলা গ্রহণ করিল। পাড়াগায়ে বাড়ি হইলেও কেশব শহরের লোক । বন্ধুর নিকট এই ব্যবহারে মনে মনে অত্যন্ত সঙ্কোচ বোধ করিল। উভয়ে প্রাঙ্গণে নামিতেই পোড়োর দল মাটিতে মাথা ঠেকাইয়া প্রণাম করিল। বাল্যবন্ধুকে দ্বার পর্য্যন্ত পৌছাই দিয়া বৃন্দাবন আস্তেআস্তে বলিল, তুমি বন্ধু হলেও ব্রাহ্মণ । তাই তোমাকে নিজের তরফ থেকে ও প্রণাম করেছি, ছাত্রদের তরফ থেকেও করেছি—বুঝলে ত ? কেশব সলঙ্গ হাস্তে বুঝেছি বলিয়া ধীরে ধীরে বাহির হইয়া গেল। পরদিন সকালেই কেশব হাজির হইয়া বলিগ, বৃন্দাবন, তুমি যে যথার্থ-ই একটা মানুষ তাতে আমার কোনো সন্দেহ নেই। বৃন্দাবন হাসিয়া বলিল, আমারও নেই । তার পর ? কেশব কহিল, তোমাকে উপদেশ দিচ্ছিনে, সে অহঙ্কার আমার কাল ভেঙে গেছে ; শুধু বন্ধুর মত সবিনয়ে জিজ্ঞাসা করছি, এ-গায়ে তুমি যেন নিজের অর্থ এবং সময় নষ্ট করে ছেলেদের শিক্ষা দিচ্ছ, কিন্তু আরও কত শত সহস্র গ্রাম রয়েছে, সেখানে ক খ শেখাবারও বন্দোবস্ত নেই। আচ্ছা, এ-কাজ কি গভর্ণমেণ্টের করা উচিত নয় ? বৃন্দাবন হাসিয়া উঠিল। বলিল, তোমার প্রশ্নটা ঠিক ওই পোড়োদের মত হ’ল। দোষের জন্য রাধুকে মারতে যাও দিকি, সে তক্ষনি দুই হাত তুলে বলবে-পত্তিতমশাই, মাধুও করেছে। অর্থাৎ মাধুর দোষ দেখিয়ে দিতে পারলে যেন রাধুর দোষ আর থাকে না। এই দেশ-জোড়া মৃঢ়তার প্রায়শ্চিত্ত নিজে ত করি ভাই, তার পরে দেখা যাবে গভর্ণমেণ্ট তার কৰ্ত্তব্য করেন কি না । নিজের কৰ্ত্তব্য করার আগে পরের কর্তব্য আলোচনা করলে পাপ হয় । কিন্তু তোমার আমার সামর্থ্য কতটুকু? এই ছোট্ট একটুখানি পাঠশালায় জনকত্তক ছাত্রকে পড়িয়ে কতটুকু প্রায়শ্চিত্ত হবে ? বৃন্দাবন বিক্ষিতভাবে একমুহূৰ্ত্ত চাহিয়া থাকিয়া কহিল, কথাটা ঠিক হ’ল না ֆթն