প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/১৬৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


5ब्रिुशेन ইইতে চিরদিনের মত রুদ্ধ হইয়া যাইবে। আর এখানে প্রবেশ ক্ষরিবে সে কোন মুখ जद्देश ? কিন্তু, এত ক্ষতি, এ লাঞ্ছনা যাহার গুপ্ত, এত বড় সৰ্ব্বনাশ যে সাধিয়া গেল, সে তাহার কে ছিল ? যে নিজে ধরা দেয় নাই, অথচ বাধিয়া গেল, দুঃখ ভোগ করে নাই, অথচ দুঃখের সাগরে ডুবাইয়া গেল। যাহাকে সত্য বলিয়া স্বীকার করা যায় না, অথচ মিথ্যা বলিয়া উড়াইয়া দেওয়া অসাধ্য! নিশ্বাস ফেলিয়া সতীশ মনে মনে কহিল, সাবিত্রী, দুঃখ দিয়াছ, সেজন্ত আর দুঃখ নাই—কিন্তু সত্য-মিথ্যায় জড়াইয়া এ কি বিষম বিড়ম্বনায় জামাকে বধিয়া রাখিয়া গেলে । দাসী হঠাৎ মুখ বাড়াইয়া কহিল, বৌমা ডাকচেন আপনাকে । সতীশ চমকিয়া চাহিল। প্রশ্ন করিল, উপেক্সবাৰু এসেচেন ? ই, কাল অনেক রাত্তিরে । র্তার ছোটভাই ? বৌঠাকরুণ ? দাসী ঘাড় নাডিয়া কহিল, কৈ না । তিনি একলা এসেচেন । এসে পৰ্য্যস্ত আমাদের বাবুর কাছে বসে আছেন । বাৰু কেমন আছেন ? দাসী নিশ্বাস ফেলিঃ বলিল, আর বাবু! শেষ হলেই হয় । সতীশ মুহূৰ্ত্তকাল মৌন থাকিয়া প্রশ্ন করিল, বৌঠান কোথায় ? তিনি এইমাত্র স্নান করে রান্নাঘরে গেলেন। সতীশ আর কোন প্রশ্ন না করিয়া পা টিপিয়া যথাসাধ্য পদশৰ বাচাইয়া সোজা রান্নাঘরে চলিয়া গেল । কিরণময়ী বোধকরি অপেক্ষা করিয়াই ছিল, সতীশ স্বারের কাছে আদিতেই উংস্থকভাবে জিজ্ঞাসা করিল, বাড়িতে না ঢুকে বাইরে দাড়িয়ে-ও কি ঠাকুরপো, চোখ-মুখ যে ভয়ানক বসে গেছে--রাত্রে ঘুমোওনি না কি ? প্রশ্নটা সতীশের কানে প্রবেশ করিবামাত্রই তাহার মুখখান ক্রোধে অগ্নিবর্ণ হইয়াই তৎক্ষণাং নিবিয়া ছাই হইয়া গেল। কহিল, ই, সারারান্ত্রি জেগে তাকে নিয়ে আমোদ-আহ্লাদ করেচি। শুনে সস্তুষ্ট হলে ত ? অার এখানে যেন না চুকি, এই ত? কিন্তু সেই ছোটলোক উপীনবাবুকে বোলো, আমাকে জিজ্ঞাসা করলে আমি সত্য কথাই বলতাম। সংসারে সে ছাড়া সত্যি কথা বলতে পারে, এমন লোক আরও আছে। তা ছাড়া সে আমার এমন কেউ নয় যে ভয়ে মিথ্যে বলতে হতো। বোলে৷ তাকে—বুঝলে বৌঠান। বলিয়াই সতীশ ফিরিয়া छजिल । - अक्षां९ गउँौप्त्रज्ञ श्रहे छाय, ७हे अछूीय क%चब-किञ्चनबईौ «क्न विनाशबां 30 &