প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/১৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ কহিল, বলেন কি ধোঁদি, শুনেচি উপনিষৎ ষে বেদ । এর প্রতি অক্ষয় যে অভ্রান্ত সত্য | w তাহার বিস্ময়ের পরিমাণ দেখিয়া কিরণময়ী আবার হাসিল । কছিল, কোন ধৰ্ম্মগ্রন্থই কখনও অভ্রান্ত সত্য হতে পারে না। বেদও ধৰ্ম্মগ্রন্থ । স্বতরাং এতেও মিখ্যার অভাব নেই। দিবাকর দুই কানের মধ্যে আঙ্গুল দিয়া সজোরে মাথা নাড়িয়া বলিল, বেঙ্গ মিথ্যা ! আর বলবেন না। বলবেন না । শুনলেও পাপ হয়—বেদ মিথ্যা ! লোকে কথায় বলে বেদবাক্য। এ কি মানুষের তৈরী যে মিথ্যা হবে ? এ যে বেঙ্গ ! তাহার কাও দেখিয়া কিরণময়ী খিল খিল করিয়া হাসিয়া উঠিল। দিবাকর কান হইতে আঙ্গুল খুলিয়া লইয়া নিজের উত্তেজনায় লজ্জিত হইয়া কহিল, সত্যই পাপ হয় বৌদি। বেদ কখন মিথ্যা হয় ? এ কি বাজে ধৰ্ম্মগ্রন্থ যে, শিবের উক্তি বলে লোকে ছুটে প্রক্ষিপ্ত রচ-শ্লোক, দশটা বানানো উপকথা ঢুকিয়ে দেবে ? বেদ মানেই যে সাক্ষাৎ সত্য । किङ्गनंशघ्नौ भूथद्र शनि छानिग्ना श्ठं९ गडौद्र एहेब कश्णि, कि छांनेि ?ांडूब्रटन, ওঁর কাছে যা শুনেছিলাম তাই বললুম। কিন্তু তুমিও ত এইমাত্র স্বীকার করলে, ধৰ্ম্মগ্রন্থ যার নাম, তাতেও শিবের উক্তি বলে মিথ্য উক্তি টোকানো আছে। দিবাকর মানিয়া লইল । কিছুদিন পূর্বেই পুরাণ সম্বন্ধে সে মাসিক পত্রিকায় সমালোচনা পড়িয়াছিল ; কহিল, অত্যন্ত অস্কায়, কিন্তু উপকথা, মিথ্যা শ্লোক ৰে আছে, এ-কথা অস্বীকার করিতে পারিনে। কিন্তু, সে ত বেশীদিন চলে না বৌদি। যা মিথ্যা, তা ছুদিনেই ধরা পড়ে যায়। কি করে ধরা পড়ে ঠাকুরপো ? - দিবাকর কহিল, সে আমি ঠিক জানিনে বৌদি। কিন্তু, যা মিথ্যা, তার খুঁটিনাটি আলোচনা করলেই পত্তিতের টের পান কোনটা সত্য, কোনটা মিথ্যা, কোনটা খাটি, কোনটা প্রক্ষিপ্ত, কিন্তু তাই বলে আপনি বেদ সত্য বলে স্বীকার করতে চান না, এ অন্যায় ! বড় অস্কায় ! উপেক্স এতক্ষণ কোন কথা কহে নাই। কিরণময়ীর এই সমস্ত উগ্র পরিহাসের • তাৎপর্ঘ্য যে কি তাহ ঠিক অনুমান করিতে না পারিয়া চুপ করিয়া বাগবিতণ্ড শুনিতেছিল। কিরণময়ী তাহার পানে একবারে কটাক্ষে চাহিয়া বোধ করি একটু হালি গোপন করিল। পরে গভীর হইয়া দিবাকরকে কহিল, কি জানো ঠাকুরপো, জামি একবার একটা ধৰ্ম্মণাস্ত্রে পড়েছিলুম যে, এক ব্রাহ্মণের ছেলে কোন কারণে, খমের সঙ্গে দেখা করতে যায়। যম তখন ৰাড়ি ছিলেন না-বোৰ করি বা শ্বশুরবাড়ি ስፃዓ