প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (একাদশ সম্ভার).djvu/২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


अंब्र६-जांङ्ङिा-नरdांझ r শুরু করিয়াছিল, সাবিত্রী তাহা লক্ষ্য করিয়া দেখিতেছিল। আজ সেই ছলনার পুনরাবৃত্তির স্বত্রপাতেই সে টের পাইল । সতীশ ধড়-ফড় করিয়া উঠিয়া বসিয়া কৃত্রিম ক্রোধের স্বরে বলিল, শুভ-কর্থের গোড়াতেই ঠুকে না বলচি । সাবিত্ৰী কহিল, তা ত বললেন। কিন্তু এণ্টান্স পাশ করতে চব্বিশ বছর কেটে গেল, এই ডাক্তারি পাশ করতে চৌষটি বছর কেটে যাবে যে ! সতীশ রাগতভাবে বলিল, মিথ্যা কথা বলে না সাবিত্রী। আমি এন্টান্স পাশ করিনি । সাবিত্ৰী হাসিয়া উঠিল । বলিল, এটাও করেননি ? সতীশ ঘাড় নাড়িয়। বলিল, নH হিংস্কটে মাস্টারগুলো আমাকে পাশ করতে যেতেই দেয়নি । সাবিত্রী এবার মুখে কাপড় দিয়া হাসিতে লাগিল। তার পরে বলিল, তবে এটা হবে কি ? কোনটা ? এই ডাক্তারিট ? সতীশ খানিকক্ষণ চুপ করিয়া থাকিয়া বলিল, আচ্ছ। সাবিত্ৰী, গাধার মত লোকগুলো একজামিন-পাশ করে কি করে বলতে পার ? সাবিত্ৰী হাসি চাপিয়া বলিল, গাধার মতন, কিন্তু গাধা নয়। যারা ঠিক গাধা, তারা পারে না । - সতীশ ব্যস্তভাবে দরজার বাহিরে গল বাড়াইয়। একবার দেখিয়া লইল, পরক্ষণেই স্থির হইয়া বসিয় একটু গম্ভীর হইয়। বলিল, কেউ যদি শোনে ত সত্যিই নিন্দ করবে। আমার মুখের সামনে দাড়ির আমাকে গাধ বলচ, এ কোন কৈফিয়ংই দেওয়া চলবে না । হায় রে! কৰ্ম্মদোষে আজ সাবিত্রী বাসার দাসী! তাই সে আঘাতটুকু সহ করিয়া লইয়। বলিল, তা বটে ! বলিয়াই ধীরে ধীরে বাহির হইয়া গেল । সতীশ আর একবার অলসের মত বিছানায় গুইয়া পড়িল। তাহার মনের মধ্যে কৰ্ম্মহীন সারাদিনের যে ছবিটা উজ্জল হইয়া উঠিতেছিল, সাবিত্রীর কথার ঘায়ে তাহার অনেকটাই মলিন হইয়া গেল এবং যে ব্যথাটুকু বহন করিয়া সাবিত্ৰী নিজে চলিয় গেল, তাহাও তাহার ছুটির আনন্দকে বাড়াইয়া দিয়া গেল, এবং যদিচ cन भरन भन्न दूकिण जांब चांद कशांशे कब्रिह णांड श्ब न, उजाफ़ किङ्करे ना