প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/২৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পথের দাৰী ভারতী বলিল, আমাদের পথের দাবীর ত কোন প্রয়োজন ছিল না গুপ্ত-সমিতি হয়ে ওঠা ! কারখানার মজুর-মিস্ত্রিদের অবস্থা ত আমি নিজের চোখেই দেখে এসেচি। তাদের পাপ, তাদের কুশিক্ষা, তাদের পশুর মত অবস্থা,-এর একবিন্থ প্রতিকারও যদি সারাজীবনে করতে পারি, তার চেয়ে বড় সার্থকতা আমার আর কি হতে পারে ? সত্যি বলো দাদা, একি তোমারই কাজ নয় ? ডাক্তার তখনই কোন জবাব দিলেন না, বহুক্ষণ নীরবে কত কি যেন চিন্তা করিয়া সহসা দাড় দুটো জল হইতে তুলিয়া লইয়া ধীরে ধীরে কছিলেন, কিন্তু তোমার এ কাজ নয় ভারতী, তোমার অন্ত কৰ্ত্তব্য আছে । এ কাজ মুমিত্রার—তাই তার পরেই আমি এ ভার গুস্ত করে রেখেচি । उपन बौरङ उँiप्लेो cणय श्ब्रां cभांश्नांच्च cखांबांब्र थांब्रख श्ब्रांझिल, किरू সাগরের স্ফীত জলবেগ এখনও এতদুরে আসিয়া পৌঁছে নাই,-সেই গুৰুপ্রায় নীবক্ষে তাহার ক্ষুদ্র তরণী মন্থর-মন্দ গতিতে ভাসিয়া চলিতে লাগিল, ডাক্তার তেমনি শাস্ত মৃদুকণ্ঠে কহিলেন, তোমাকে বলাই ভাল ভারতী, জনকতক কুলি-মজুরের ভাল করার জন্তে পথের দাবী আমি স্বষ্টি করিনি। এর ঢের বড় লক্ষ্য। এই লক্ষ্যের মুখে হয়ত একদিন এদের ভেড়া-ছাগলের মতই বলি দিতে হবে,—তার মধ্যে তুমি থেকে না বোন, সে তুমি পারবে না। ভারতী চমকিয়া উঠিয়া কহিল, এসব তুমি কি বলচ দাদা ? মানুষকে বলি দেবে কি ! ডাক্তার তেমনি শাস্তস্বরে বলিলেন, মানুষ কোথায় । জানোয়ার বই ত बधि । ভারতী তীত হইয়া কহিল, মানুষের সম্বন্ধে তুমি ঠাট্টা করেও অমন কৰা মুখে এনে না বলচি । সকল সময়ে সব কথা তোমার বোঝা যায় না—বুঝতেও পারিনে, তা মানি ; কিন্তু তোমার মুখের কথার চেয়ে তোমাকে ঢের বেশী বুঝি দাদা, মিথ্যে আমাকে ভয় দেখাবার চেষ্টা করো না । ডাক্তার ৰলিলেন, না ভারতী, মিথ্যে নয়, তোমাকে সত্যি ভয় দেখাবার চেষ্টা করচি, যেন আমার বাবার পরে আর ভূমি কারখানার কুলি-মজুরদের ভাল-করার মধ্যে না থাকে। এমন করে এদের ভালো করা যায় না,—এদের ভাল-করা যায় গুৰু বিপ্লবের মধ্যে দিয়ে। এবং সেই বিপ্লবের পথে চালনা করার জন্তেই আমার পথের দাবীর স্বষ্টি । বিপ্লব শাভি নয় । হিংসার মধ্যে দিয়েই তাকে চিরদিন পা ফেলে আসতে হয়,—এই তার বর, এই তার অভিশাপ। একবার ইউরোপের দিকে চেয়ে cवथ । शं८षत्रैौरङ उद्दे श्रबद्दछ, कलिब्रांब बांब्र बांब ७मनि घटछे८इ, sv गांध्णब्र इन २३१