প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দশম সম্ভার).djvu/২৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ শিবু আবার গুইয়া পড়িল, কোন কথা কহিল না। তখন পাচু বহুপ্রকারে বুঝাইতে লাগিল যে, এ স্থযোগ কোনও মতে হাতছাড়া করা উচিত নয় । দিদি ত একদিন আসবেই, কিন্তু তখন আর এ-ব্যাটাকে বাগে পাওয়া যাবে না । শিবু উদাসকণ্ঠে বলিল, এখন থাক গে পাচু! আগে সে ফিরে আস্থক, তার পরে- * পাচু বাধা দিয়া কহিল, তারপরে কি আর হবে সামস্তমশাই, বরঞ্চ, দিদি ফিরে আসতে না আসতে কাজটা শেষ করা চাই । সে এসে পড়লে হয়ত আর হবেই না। শিবু রাজি হইল। কিন্তু আপনার খালিঘরের দিকে চাহিয়া পরের উপর প্রতিশোধ লইবার জোর আর সে কোনমতে নিজের মধ্যে খুজিয়া পাইতেছিল না। এখন পাচুর জোর ধার করিয়াই তাহার কাজ চলিতেছিল। পরদিন রাত্রি থাকিতেই তাহারা আদালতের পেয়াদা প্রভৃতি লইয়া বাহির হইয়া পড়িল। পথে পাচু জানাইল, বহু দুঃখে খবর পাওয়া গেছে, শস্তু তাহাকে পাচলার সরকারী পুলের কাজে নাম ভাড়াইয়া ভৰ্ত্তি করিয়া দিয়াছে—সেইখানেই তাহাকে গ্রেপ্তার করিতে হইবে। শিবু বরাবরই চুপ করিয়াই ছিল, তখনও চুপ করিয়া রহিল। তাহারা গ্রামে যখন প্রবেশ করিল তখন বেলা দ্বিপ্রহর । গ্রামের একপ্রাস্তে প্রকাও মাঠ, লোকজন, লোহা-লক্কড়, কল-কারখানায় পরিপূর্ব-সৰ্ব্বত্রই ছোট ছোট ঘর বাধিয়া জন-মজুরের বাস করিতেছে। অনেক জিজ্ঞাসাবাদের পর একজন কহিল, যে ছেলেটি সাহেবের বাংলা লেখাপড়ার কাজ করচে, সে ত ? তার ঘর ঐ ষে, বলিয়া একখানা ক্ষুদ্র কুটার দেখাইয়া দিল, তাহারা গুড়ি মারিয়া পা টিপিয়া অনেক কষ্ট্রে তাহার পাশে আসিয়া দাড়াইল। ভিতরে গয়ারামের গলা শুনিতে পাওয়া গেল। পাচু পুলকে উল্লসিত হইয়া পেয়াদ এবং শিবুকে লইয়া বীরপে অকস্মাৎ কুটারের উন্মুক্ত দ্বার রোধ করিয়া দাড়াইবামাত্রই তাহার সমস্ত মুখ বিস্ময়ে, ক্ষোভে নিরাশায় কালো হইয়া গেল। তাহার দিদি ভাত বাড়িয়া দিয়া একটা হাতপাখা লইয়া বাতাস করিতেছে এবং গয়ারাম ভোজনে বসিয়াছে। শিবুকে দেখিতে পাইয়া গঙ্গামণি মাথায় আঁচল তুলিয়া দিয়া শুধু কহিল, তোমরা একটু জিরিয়ে নিয়ে নদী থেকে নেয়ে এসো গে, আমি ততক্ষণ আর এক হাড়ি ভাত छक्लिद्ब्र मिट्टे । ३€ ¥