প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (দ্বাদশ সম্ভার).djvu/২৫৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেবের পরিচয় সারদার মুখে অবিশ্বাসের হাসি ফুটিয়া উঠিল । বলিল, মা, আমি তা হলে এখন উপরে চললাম। সারদা চলিয়া গেল । তারক কণ্ঠস্বর নীচু করিয়া বলিল, আমার সঙ্গে শিবশঙ্করবাবু তার ভাইঝির বিৰাহ দিতে ইচ্ছুক হয়েচেন । কিন্তু তার কয়েকটি সর্ত আছে। সেই সৰ্ত্তে আমি এখনও সম্মতি দিতে পারিনি। যদিও শিবশঙ্করবাবুর সাহায্যে আমি এই অল্পদিনের মধ্যেই ‘বারে’ এতটা নাম করতে পেরেচি এবং তিনি সহায় থাকলে আমি যে খুব শীঘ্রই উন্নতির মুখে এগিয়ে যেতে পারবো এও ঠিক, কিন্তু— তার কথা অসমাপ্ত রাখিয়া চুপ করিল। সবিতা তারকের পানে জিজ্ঞামু-নয়নে তাকাইয়া রহিলেন । অনেকক্ষণ চুপ করিয়া থাকিয়া তারক আস্তে আস্তে বলিল, শিববাবুর প্রধান ও প্রথম সর্ত বিবাহের কিছুদিন, আস্ততঃ বছরখানেক আমাকে তার কাছে গিয়ে থাকতে হবে । কেন ? র্তার ভাইঝিটি পিতৃহীন । শিববাবুর নিজের মেয়ে নেই, কাজেই— বুঝেচি, ভাইঝিকে নিজের মেয়ের মতন মানুষ করেচেন। কাছ-ছাড়া করতে চান না বোধ হয়— হ্যা, নিজের মেয়ের অধিক ভালবাসেন তাকে তাই বলেছিলেন—তুমি আমার বাড়িতে এসে থাকে, তোমার কাজকর্মের অনেক সুবিধা হবে। পরে তোমার পৃথক ংসার পেতে দেওয়ার দায়িত্ব আমার রইলো । সবিতা বলিল, এতে তোমার অসুবিধা কি আছে ? তারক আমতা আমতা করিয়া টোক গিলিয়া বলিল, অসুবিধা ঠিক আমার নিজের নেই বটে, বরং সৰ্ব্বদা তার কাছ থেকে কাজকৰ্ম্ম শেখা ও পৃথক কে পাওয়ার দিক দিয়ে সুবিধাই হবে বলে মনে হয় ; কিন্তু আমি যাই কি করে মা ? ধরুন, আপনার দেখাশোনা— সৰিত হাসিয়া বলিল, ও, এইজন্ত ? আমার সম্বন্ধে তুমি কিছু ভেবো না তারক। আমি তো আজই সকালে ভাবছিলাম—কিছুদিন বাইরে কোথায় গেলে হয়। জীবনে এ-পর্য্যস্ত তীর্থ ভ্রমণ ঘটেনি। ভাবছি এবার তীর্থে বেঙ্কবো । একলা যাবেন ? * আমি যদি যাই, সারদাকেও সঙ্গে নেবো, কিংবা ওদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বোর্ডিং-এ ওকে রেখে যাবো । 总8剑 eaاس سچ و