প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/১৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন হরেক্স তাহার মুখের প্রতি চাহিয়া একমুহূর্ত চুপ করিয়া থাকিয়া বলিল, ভয় পাবেন না, ভয় পাবার মত কিছু নয়। কাল আসতাম, কিন্তু সময় করে উঠতে পারিনি। আমাদের অক্ষয়বাবু কলেজে আসেননি, শুনলাম তার শরীর খারাপ, আপ্তবাবু বিছানা নিয়েচেন সে ত কাল দেখেই এসেচেন—ওদিকে অবিনাশদার কাল বিকেল থেকে জর, বৌদির মুখটিও দেখলাম গুক্নো শুকনো । তিনি নিজে না পড়লে বাচি । কমল চুপ করিয়া চাহিয়া রহিল। এ-সকল খবরে সে যেন ভাল করিয়া মন দিতেই পারিল না। হরেক্স কহিল, এ-ছাড়া শিবনাথবাবু। ইনফ্লুয়েঞ্জার ব্যাপার—বলা কিছু যায় না। অথচ হাসপাতালে যেতেও চাইলে না। কাল বিকেলে তার নিজের বাসাতেই র্তাকে রিমুভ করা হ'ল। আজ খবরটা একবার নিতে হবে। কমল জিজ্ঞাসা করিল, সেখানে আছে কে ? 載 একটা চাকর আছে । উপরের ঘরগুলোতে জন-কয়েক পাঞ্জাবী আছে— ঠিকাদারী করে। শুনলাম তারা লোক ভাল । কমল নিশ্বাস ফেলিয়া চুপ করিয়া রহিল। খানিক পরে কহিল, রাজেনবাবুকে আমার কাছে একবার পাঠিয়ে দিতে পারেন ? পারি, কিন্তু তাকে পাব কোথায় ? আজি ভোর থাকতেই বেরিয়ে পড়েচে । ঐ-দিকের কোন একটা মুচীদের মহল্লায় নাকি জোর ব্যারাম চলেচে, সে গেছে সেবা করতে। আক্ৰমে খেতে যদি আসে ত খবর দেব। তাকে রিমুভ করলে কে ? আপনি ? না, রাজেন। তার মুখেই জানতে পারলাম পাঞ্জাবীর যত্ন নিচ্ছে। তবে তারা যাই করুক, ও যখন ঠিকান পেয়েচে তখন সহজে ক্রটি হতে দেবে না—হয়ত নিজেই লেগে যাবে। একটা ভরসা—ওকে রোগে ধরে না । পুলিশে না ধরলে ও একাই একশ । ভায়া ওদের কাছেই শুধু জবা, নইলে ওকে কাবু করে দুনিয়ায় এমন ত কিছুই দেখলাম না । ধরার আশঙ্কা আছে নাকি ? আশা ত করি। অন্ততঃ আশ্রেমটা তা হলে বঁাচে । ওঁকে চলে যেতে বলে দেন না কেন ? ঐটি শক্ত। বললে এমনি চলে বাবে যে মাথা খুড়লেও আর ফিরবে না। না ফিরলেই বা ক্ষতি কি ? 38