প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/২৭২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ কমল সহাস্তে কহিল, সে কি কাকাবাবু রাজেনের কথা জানিনে, কিন্তু জামি দু’পয়সা পাবার জন্তে দিনরাত কত থাটি । আপ্তবাবু বলিলেন, সে গুনতে পাই। তাই বলে বসে ভাবি । সেদিন বাসায় ফিরিতে কমলের বিলম্ব হইল। যাবার সময় আগুবাবু বলিলেন, তর নেই মা, যে আমাকে কখনো ছেড়ে থাকেনি, আজও সে ছেড়ে থাকবে না । নিরুপায়ের উপায় সে করবেই। এই বলিয়া তিনি স্বমুখের দেওয়ালে টাঙানো লোকান্তরিত পত্নীর ছবিটা আঙুল দিয়া দেখাইয়া দিলেন। কমল বাসায় পৌঁছিয়া দেখিল সহজে উপরে যাইবার যো নাই, রাশিরুত বাক্সতোরঙ্গে সিড়ির মুখটা রুদ্ধপ্রায়। বুকের ভিতরটায় ছাৎ করিয়া উঠিল। কোনমতে একটু পথ করিয়া উপরে গিয়া শুনিল পাশের রান্নাঘরে কলরব হইতেছে ; উকি মারিয়া দেখিল অজিত হিন্দুস্থানী মেয়েলোকটির সাহায্যে ষ্ট্রোভে জল চড়াইয়াছে এবং চা চিনি প্রভৃতির সন্ধানে ঘরের চতুর্দিকে আতি-পাতি করিয়া খুজিয়া ফিরিতেছে । এ কি কাও ? অজিত চমকিয়া ফিরিয়া চাহিল, চা-চিনি কি তুমি লোহার সিন্দুকে বন্ধ করে রাখ না কি ? জল ফুটে যে প্রায় নষ্ট হয়ে এলো । ফিন্তু আমার ঘরের মধ্যে আপনি খুজে পাবেন কেন ? সরে আমন, আমি তৈরি করে দিচ্চি । অজিত সরিয়া আসিয়া দাড়াইল । কমল কহিল, কিন্তু এ কি ব্যাপার ? বাক্স-তোরঙ্গ, পোটলা-পুটলি, এ-সব কার? অামার। হরেনবাবু নোটিশ দিয়েচেন । দিলেও যাবার নোটিশ দিয়েচেন। এখানে আসবার বুদ্ধি দিলে কে ? এটা নিজের। এতদিন পরের বুদ্ধিতে দিন কেটেচে, এবার নিজের বুদ্ধি খুজে বের করেচি । কমল কহিল, বেশ করেচেন। কিন্তু ওগুলো কি নীচেই পড়ে থাকবে ? চুরি বাৰে ষে । "গুনিয়া অজিত ব্যস্ত হইয়া উঠিল, যায়নি তো, একটা চামড়ার বাক্সে অনেকগুলো টাকা অাছে। y কমল ঘাড় নাড়িয়া বলিল, খুৰ ভাগ। একজাতির মাছৰ জাছে তার জাপি বচ্ছরেও সাবালক হয় না। তাদের মাথার উপর অভিভাবক একজন চাই-ই। এ ૨૭૨