প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (পঞ্চম সম্ভার).djvu/২৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ হলে এমন করে শোধ কত্বে দিতে না । না হয়, একবার টাকাটাই চেয়েছিলাম, লেও তোমারই বোঁঠানের অস্বখের জন্তে, আমার নিজের জন্তে কিছু নয়—বলি কত স্বদে বন্ধক রাখলে বাডিটা ? গুরুচরণ ঘাড় নাড়িয়া কহিলেন, বন্ধক রাখিনি—স্বদের কথাও কিছু হয়নি। নবীন বিশ্বাস করিলেন না, বলিলেন, বল কি, শুধু-হাতে ? ই দাদা, একরকম তাই বটে। ছেলেটি বড় সৎ, বড় দয়ার শরীর । ছেলেটি ? ছেলেটি কে ? গুরুচরণ এ-প্রশ্নের জবাব দিলেন না, মৌন হইয়া রহিঙ্গেন। যতটা বলিয়া ফেলিয়াছেন এতটাও তাহার বলা উচিত ছিল না। নবীন তাহার মনের ভাব বুঝিয়া মৃদু হাসিয়া কহিলেন, যখন নিষেধ আছে তখন কাজ নেই, কিন্তু সংসাবেব অনেক জিনিসই দেখেচি বলে এইটুকু সাবধান করে দিই ভায়া, তিনি যেই হোন, এত ভাল করতে গিয়ে শেষকালে যেন ফ্যাসাদে না ফেলেন । গুরুচরণ সে-কথার আর জবাব না দিয়া নমস্কার করিয়া কাগজখানি হাতে করিয়া বাড়ি ফিরিয়া আসিলেন । প্রায় প্রতি বৎসরেই ভূবনেশ্বরী এই সময়টায় কিছুদিনের জন্ত পশ্চিম ঘুরিয়া আসিতেন । তাহার অজীর্ণ রোগ ছিল, ইহাতে উপকার হইত। রোগ বেশি নয়। নবীন গুরুচরণের কাছে সেদিন কার্ধ্যোদ্ধারের জন্তই বাড়াইয়া বলিয়াছিল। যাহাই হউক, যাত্রার আয়োজন হইতেছিল। সেদিন সকালবেলা একটা চামড়ার তোরঙ্গে শেখর তাহার আবশ্বকীয় সোঁখীন জিনিসপত্র গুছাইয়া লইতেছিল। আমাকালী ঘরে ঢুকিয়া বলিল, শেখরদা, তোমরা কাল যাবে, না ? শেখর তোরঙ্গ হইতে মুখ তুলিয়া বলিল, কালী, তোর সেজদিকে ডেকে দে, সে কি সঙ্গে নেবে-টেবে, এই সময়ে দিয়ে বাক । ললিত প্রতি বৎসর মায়ের সঙ্গে যাইত, এবারেও যাইবে, তাহাই শেখর জানিত । কালী ঘাড় নাড়িয়া বলিল, এবার সেজদি ত বাবে না । কেন বাবে না ? কালী কছিল, বা:, কি করে যাবে । মাঘ-ফাগুন মাসে ওর বিয়ে হবে, বাৰা বয় খুজে বেড়াচ্ছেন ষে । c=थज्ञ निर्मिदबष-<छरिष छक श्ब्र छांश्ब्रि ब्रहिण । ቁoቅ