প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/৩৫৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


5टॅनांथे দেখি দিদি—আমাকে বিশ্বাস করিস ত ? করি বৈ কি ! তবে বল দেখি, চন্দ্রনাথ তোকে কতখানি ভালবাসে ? সরযু একটু লজ্জিত হইল, বলিল, খুব দয়া করেন। দয়ার কথা নয়। খুব একেবারে বড় বেশী ভালবাসে কি না ? সরযু হাসিল। বলিল, বড় বেশী কি না—কেমন ক’রে জানব ? সত্যি জানিস নে ? ন । সত্যই সরযু ইহা জানিত না । হরিবালা যেন বড় বিমৰ্ষ হইয়া পড়িলেন। মাখা নাড়িয়া বলিলেন, স্ত্রী জানে না, স্বামী তাকে কতখানি ভালবাসে । এইখানেই আমার বড় ভয় হয় । হরিবালার মুখের ভাবে একটা গভীর শঙ্কা প্রচ্ছন্ন ছিল, সরযু তাহা বুঝিয়া নিজেও শঙ্কিত হইল। বলিল, ভয় কিসের ? আর একদিন শুনিস। তার পর তাহার চিবুকে হাত দিয়া মৃদুস্বরে কহিলেন, এত রূপ, এত গুণ, এত বুদ্ধি নিয়ে, সই, এত দিন কি ঘাস কাটছিলি ? সরযু হাসিয়া ফেলিল । ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ তখনও কথাটা প্রকাশ পায় নাই। হরিদয়াল ঘোষালের সন্দেহের মধ্যেই প্রচ্ছন্ন ছিল । একজন ভদ্রলোকের মত দেখিতে অথচ বস্ত্রাদি জীর্ণ এবং ছিন্ন আঞ্জ দুই-তিন দিন হইতে বামুন-ঠাকরুণ স্থলোচনা দেবীর সহিত গোপনে পরামর্শ করিয়া যাইতেছিল । স্বলোচনা ভাবিত হরিদয়াল তাহা জানেন না ; কিন্তু তিনি জানিতে পারিয়াছিলেন । আজ দ্বিপ্রহরে দয়ালঠাকুর এবং কৈলাসখুড়া ঘরে বসিয়া সতরঞ্চ খেলিতেছিলেন, এমন সময় অন্দরের প্রাঙ্গণে একটা গোলযোগ উঠিল । কে যেন মৃদুকণ্ঠে সকাতরে দয়া ভিক্ষা চাহিতেছে, এবং অপরে কর্কশকণ্ঠে তীব্র-ভাষায় তিরস্কার করিতেছে এবং ভয় দেখাইতেছে। একজন স্ত্রীলোক, অপর পুরুষ । দয়ালঠাকুর কহিলেন, খুড়ো, বাড়িতে কিসের গোলমাল হয় ? কৈলাপখুড়া বলিলেন, কিস্তি। সামলাও দেখি বাবাজী ! لكن 6 وتا - 8: