প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/৩৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ কৈলাসচন্দ্রের এইরূপে নূতন ধরনের দিনগুলো কাটে। পুরাতন বাধা নিয়মে বিষম বধি পড়িয়াছে। সাবেক দিনের মত দাবার পুটলি আর সব সময়ে তেমন যত্ন পায় না, হয়ত বা ঘরের কোণে একবেল পড়িয়া থাকে ; শম্ভু মিশিরের সহিত রোজ সকালবেলায় হয়ত বা দেখা-শুনা করিবার স্ববিধ ঘটিয়া উঠে না। গঙ্গা পাড়ের দ্বিপ্রাহরিক খেলাটা ত একরূপ বন্ধ হইয়া গিয়াছে, সন্ধ্যার পর মুকুম্ব ঘোষের বৈঠকখানায় আর তেমন লোক জমে না,—মুকুন্দ ঘোষ ডাকিয়া ডাকিয়া হার মানিয়াছে,—কৈলাপচন্দ্রকে রাত্রে আর কিছুতেই পাওয়া যায় না । সে সময়টায় তিনি প্রদীপের আলোকে বসিয়া নূতন শিক্সটিকে খেলা শিথাইতে থাকেন ; বলেন, বিত, ঘোড়া আড়াই পা চলে । বিশু গম্ভীরভাবে বলে, ঘোয়া— হ্যাঁ ঘোড়া— ঘোয় চয়ে—ভাবটা এই যে, ঘোড়া চলে । হ্যা, ঘোড়া চলে, আড়াই পা চলে । বিশ্বেশ্বরের মনে নূতন ভাবোদয় হয়, বলে গায়ি চয়ে— কৈলাসচন্দ্র হতাশ ভাবে প্রতিবাদ করিয়া বলেন, না দাদা, এ ঘোড়া গাড়ি টানে না । সে ঘোড়া আলাদা । সরযু এ সময়ে নিকটে থাকিলে, পুত্রের বুদ্ধির তীক্ষত দেখিয়া মুখে কাপড় দিয়া হাসিয়া চলিয়া যায়। বিশু আজুল বাড়াইয়া বলে, ঐতে । অর্থাৎ সেই লাল রঙের মন্ত্রীট এখন চাই। বৃদ্ধ কিছুতেই বুঝিয়া উঠিতেন না যে, এতগুলো দ্রব্য থাকিতে ঐ লাল মন্ত্ৰীটার উপরেই তাহার এত নজর কেন ? - .প্রার্থনা কিন্তু অগ্রাহ হইবার জো নাই। বৃদ্ধ প্রথমে দুটো একটা বোড়ে' হাতে দিয়া ভুলাইবার চেষ্টা করিতেন ; বিশু বড় বিজ্ঞ, কিছুতেই ভুলিত না। তখন অনিচ্ছা সত্বেও তাহার ক্ষুদ্র হন্তে প্রার্থিত বস্তুটি তুলিয়া দিয়া বলিতেন, দেখিল দাদা, যেন হারায় না। কেন ? মন্ত্রী হারালে কি খেলা চলে ? চয়ে না ? কিছুতেই না । वित्त गछौब्र श्हेब्र बलिउ, गोष्ट्र-यन्डौं ! શા प्रॉक्षू-मङ्गैौ ! ՎԶԵ Ե