প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (সপ্তম সম্ভার).djvu/২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ হইয়া উঠিত। আজ কিন্তু তাহার মুখ দিয়া আর কোন কথাই বাহির হইল না । মহিম মনে মনে বিস্ময়াপন্ন হইয়া কহিল, বাসায় ফিরে এসে শুনি, তুমি গিয়েছিলে । তাই মনে করলুম— দয়া করে একবার দেখা দিয়ে আসি না হে ! কতদিন পরে এলে মনে করতে পার ? মহিম হাসিয়া কহিল, পারি। কিন্তু সময় করে উঠতে পারিনি যে ! বলিয়া লক্ষ্য করিয়া দেখিল, গ্যাসের আলোকে স্কুরেশের মুখের চেহারা অত্যন্ত স্নান এবং কঠিন দেখাইতেছে। তাহাকে প্রসন্ন করিবার অভিলাষে স্নিগ্ধস্বরে পুনরায় কহিল, তোমার রাগ হতে পারে, এ আমি হাজারবার স্বীকার করি সুরেশ । কিন্তু বাস্তবিক সময় পাইনে। আজকাল পড়াশুনার চাপও একটু আছে, তা ছাড়া সকালে-বিকালে গোটা-দুই টিউসনি— আবার টিউসনি নেওয়া হয়েচে ? মহিম তাহার ঠিক জবাবটা এড়াইয়া গিয়া জিজ্ঞাসা করিল, আমাকে খুজেছিলে, বিশেষ কিছু দরকার ছিল কি ? স্বরেশ কহিল, ছ। তুমি আজ না এলে আমাকে আবার সকালে যেতে হত। মহিম কারণ জানিবার জন্য জিজ্ঞাস্বমুখে চাহিয়া রহিল । স্বরেশ অনেকক্ষণ পৰ্য্যন্ত নিঃশব্দে তাহার পায়ের জুতা-জোড়ার পানে চাহিয়া থাকিয়া কহিল, তুমি এর মধ্যে বোধ করি কেদারবাবুর বাড়িতে আর যাওনি । মহিম কহিল, না । কেন যাওনি, আমার জন্তে ত? আচ্ছা, তোমার সেই প্রতিশ্রুতি থেকে তোমাকে আমি মুক্তি দিলুম। তোমার ইচ্ছামত সেখানে যেতে পার । মহিম হাসিল ; যাব না, এমন প্রতিজ্ঞ করেছিলেম বলে ত আমার মনে হয় না ! স্বরেশ বলিল, না হয় ভালই, তবুও আমার তরফ থেকে যদি কোন বাধা থাকে ত সে আমি তুলে নিলুম। এটা অনুগ্রহ না নিগ্রহ, সুরেশ ? তোমার কি মনে হয় মহিম ? চিরকাল যা মনে হয়, তাই । সুরেশ কহিল, তার মানে আমার খামখেয়াল ! এই না ? তা বেশ, তোমার যা ইচ্ছে মনে করতে পার, আমার আপত্তি নেই। শুধু যে বাধাটা আমি দিয়েছিলুম, সেইটেই আজ সরিয়ে দিলুম। কিন্তু তার কারণ জিজ্ঞাসা করতে পারি কি ? খেয়ালের কি কারণ থাকে যে তুমি জিজ্ঞাসা করলেই আমাকে বলতে হবে । "לל