পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/১১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


సిg শিখগুরু ও শিখজাতি , সিয়াল ও মুলতানী মুসলমানেরা উৎকৃষ্ট যোদ্ধা বলিয়া খ্যাতি লাভ করিয়াছে। পাঞ্জাবী মুসলমানেরাও পাঞ্জাবী শিখদিগের তুল্য সমরনিপুণ । রণজিতের গুীয় প্রতিভাশালী নায়কের অধীনে শিখেরা যেমন: একটা বীরজাতি হইয় গড়িয়া উঠিতে পারিয়াছিল, পাঞ্জাবী মুসলমানেরা তেমন কোনো নায়কের অধীনে দলবদ্ধ হইয় উঠে নাই । সময়ে সময়ে দুই একজন প্রতিভাহীন উৎসাহী মুসলমান ক্ষণকালের জন্য মাথা তুলিয়া, উঠিয়াছিলেন বটে, কিন্তু তাহারা কিছু গড়িতে পারেন নাই ; তাহদের উত্তেজনা-বহ্নিতে মুসলমানের তৃণবং দগ্ধ হইয়াছিল। দল বাধিয়। উঠিতে না পারায় পাঞ্জাবী মুসলমানের পঞ্চনদপ্রদেশে কখনো প্রাধান্ত লাভ করিতে পারে নাই। জয়লক্ষ্মী স্থিরবুদ্ধি ও শক্তিসম্পন্ন শিখদিগকেই জয়মাল্য পরাইয়া দিয়াছিলেন । পঞ্চনদপ্রদেশের একাধিপত্যলাভের নিমিত্ত রণজিৎ যেমন শিখশাখাসম্প্রদ! নিল সহিত যুদ্ধ করিয়াছেন, তেমনি ছোট ছোট মুসমলমানসম্প্রদায়গুলির সহিতও সংগ্রাম করিয়াছেন । দীর্ঘকাল কঠোর যুদ্ধের পর তিনি সমগ্র প্রদেশের প্রভূ হইয়াছেন । লাহোরের নিকটবৰ্ত্তী সেথোপুর ও ঝাঙ্গ অঞ্চলে প্রায় চল্লিশটা গ্রামে খরুল (Kharas) সম্প্রদায়ের মুসলমানরা বাস করিত। এই সম্প্রদায়ের মুসলমানের বড়ই দুৰ্দ্দাস্ত প্রকৃতির, তাহার কখনো কোনো শাসন মানিয়া চলিতে চাহিত না। শত্রুসৈন্তকর্তৃক আক্রান্ত হইলে তাহারা দুৰ্গম গভীর অরণ্যে বা জলাভূমিতে পলায়ন করিত। ১৮•৩ খৃষ্টাব্দে মহারাজ রণজিৎ তাহাদের বাসভূমি স্বরাজ্যভুক্ত করেন। • - সিয়াল (Sials) সম্প্রদায়ভুক্ত মুসলমানের বাঙ্গ, লেস্কিয়া ও চুনিয়াট প্রভৃতি অঞ্চলে বাস করিত। ১৮৯৩ খৃষ্টাব্দে রণজিৎ সর্বপ্রথমে ইহা मिश्रक पद* घनिष्ठ cफ़डे काग्रन । निद्राणाझद्र नांङ्गरू अश्श्रिम पॅ}