পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিখগুরু ও শিখ জাতি "לל আদেশে শিষ্যের অম্লান বদনে ঐ অত্যাচার সহ করিতে লাগিল ৮ একবার দুইবার করিয়া বহুবার উৎপীড়িত হইয়া অবশেষে তাহারা অসহিষ্ণু হইয় পড়িল । শিষ্যের গুরুকে জিজ্ঞাসা করিলেন—“কত দিন আমরা এইরূপ উৎপীড়ন সহ করিব ? ’ গুরু উত্তর করিলেন, —“আজীবন যদি তোমাদের প্রতি ঐরুপ দারুণ অত্যাচার , চলিতে থাকে তথাপি চিরকাল সহ করিবে, কখনো প্রতিহিংসা গ্রহণ করিবে না।” বাবা নানকের পুত্র ঐচাদ উদাসী সম্প্রদায় স্থাপন করিয়াছিলেন । তাহার সম্প্রদায়ভুক্ত লোকেরা শিথ বলিয়া পরিচিত ছিল । নানক স্বীয় পুত্রকে অযোগ্য বলিয়া তাহাকে আপনার ধৰ্ম্মসম্প্রদায়ের নেতা করেন নাই । বাবা মানকের মতে ধৰ্ম্মার্থীর সংসারত্যাগী হওয়া অনাবশ্যক । উদাসী সম্প্রদায় গৃহত্যাগী । নানকের ধৰ্ম্মের সহিত প্রচাদের প্রচারিত ধৰ্ম্মের বিরোধ থাকিলেও উভয় সম্প্রদায় একই ধৰ্ম্মের দুইটি শাখার স্থায় চলিতেছিল । গুরু অঙ্গদ শ্ৰীচাদকে গুরুপুত্র বলিয়া সম্মান করিতেন । তজ্জন্ত তিনি শ্ৰীচাদের উদাসী দলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ তোলেন নাই । তৃতীয় গুরু অমর দাস প্রকাগুভাবে প্রচার করিতে লগিলেন যে "উদাসী’ এবং * শিখ” এক নহে, এই উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে কোন সম্বন্ধ নাই । এইরূপে তিনি নবজাত শিখধৰ্ম্মকে একটি বিপদ হইতে উদ্ধার করিলেন । গুরু অমরদাস তাহার কস্তাকে নিরতিশয় স্নেহ করিতেন । রামদাস নামক এক ক্ষত্রিয় জাঠযুবকের সহিত র্তাহার বিবাহ দিয়াছিলেন । রামদাস শ্রদ্ধা ও বিনয়ে গুরু অমরদাসের ভক্তদিগের মধ্যে শ্ৰেষ্ঠস্থান অধিকার করিয়াছিলেন । শিখধৰ্ম্মে তাহার অত্যন্ত নিষ্ঠ ছিল । মৃত্যুর পুৰ্ব্বে গুরু তাহার কন্থার অনুরোধে জামাতাকে শিখ সম্প্রদায়ের নেতৃত্ব দান করেন । গুরুপদ এই সময় হইতে বংশানুগত হইল ।