পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৬১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অধ্যায়ু \లిసె “তোমাদের মন, আচার ও ধৰ্ম্মবিশ্বাস সমান হউক। তোমরা সকলে তুল্য, কেহ উচ্চ কেহ নীচ নহ। হিন্দুদের ধৰ্ম্ম-গ্রন্থের উপর তোমরা বিশ্বাস স্থাপন করিও না, তীর্থ ভ্রমণ হইতে বিরত হও, হিন্দুদেবদেবীর প্রতি শ্রদ্ধা দেখাইও না। একমাত্র গুরু নানককে শ্রদ্ধা দেখাইবে । আজ তাবধি তোমাদের মধ্য হইতে জাতিভেদ চলিয়া গেল। পাহুল তোমাদিগকে মুক্তিদান করবে। ” গোবিনসিংহের উদার আহ্বান জাঠ কৃষক সম্প্রদায়ের উপর আশ্চর্যা প্রভাব বিস্তার করিয়াছিল। এতদিন যাহারা নীচবর্ণ বলিয়া শিখ-সম্প্রদায়ে স্থান পায় নাই, গুরু তাহাদিগকে খালসা করিয়া লইলেন । হিমালয়পৰ্ব্বতে সাধনসময়ে তিনি যে চিত্র কল্পনায় আঁকিয়াছিলেন, কাৰ্য্যক্ষেত্রে গোবিন্দসিংহ তাহা সত্যে পরিণত করিলেন। তিনি এখন সত্য সত্যই বলিতে পারেন :

  • সিন্ধুমাঝারে মিশিছে যেমন পঞ্চনদীর জল,

আহ্বান শুনে কে কারে থামায়, ভক্ত-হৃদয় মিলিছে আমায়, পঞ্জাব জুড়ি উঠছে জাগিয়৷ উন্মদিকোলাহুল ! 索 * * 米 ভুলে যায় সবে জাতি অভিমান, অবহেলে দেয় আপনার প্রাণ, এক হয়ে যায় মান অপমান ব্রাহ্মণ অার জাঠ ” গুরু গোবিনা সিংহের সংস্কারকার্য্যে অল্পসংখ্যক উচ্চশ্রেণীর ব্রাহ্মণ ও ক্ষত্রিয় শিখ অসন্তুষ্ট হইয় তাহীকে পরিত্যাগ করিয়াছিল । 劃