পাতা:শিখগুরু ও শিখজাতি.pdf/৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*鉱リア শিখগুরু ও শিখজাতি খেলিতেছিল । তাহার বন্দী শিখবীরদিগের উপর নানাপ্রকার অত্যচার করিতে করিতে দিল্লীর অভিমুখে অগ্রসর হইতেছিল। কিন্তু নির্ভীক শিখদিগের হৃদয়ে কিছুতেই ভয়ের সঞ্চার হইল না। কাজির 'বিচারে প্রতিদিন একশত শিখ ধাতকের তরবারির আঘাতে প্রাণ হারাইতে ছিল। তথাপি একজন শিখও মৃত্যুভয়ে ভীত হইল না । সকলেই অগ্রে জীবন দান করিবার জন্ত ব্যাকুলতা দেখাইয়া দর্শকদিগকে চমৎকৃত করিতেছিল। অষ্টম দিনে বন্দাকে বিচারকদের সমক্ষে উপনীত করা হইল । তাহার কঠোর পরীক্ষা উপস্থিত। বিচারক বন্দীর শিশুপুত্রকে তাহার অঙ্কে স্থাপন করিয়া বন্দার হস্তে একখানি ছোরা দিলেন, এবং ঐ ছোরা দ্বারা স্বহস্তে নিজপুত্রকে বধ করিবার আদেশ দিলেন। তিনি নিঃশব্দে অবিচলিত হস্তে পুত্রের বক্ষে ছোরা বসাইয়া দিলেন। হত্যা করিবার পর ঘাতকের দগ্ধ-সপড়াশী দ্বারা তাহার মাংস টানিয়া ছিড়িয় তাহাকে হত্যা করিল। বন্দী একটিবারও কাতরতা প্রকাশ না করিয়া পরম ধৈর্য্য সহকারে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করিলেন। বৈরাগী বন্দ কোনো দিন শিখসম্প্রদায়ের শ্রদ্ধাভাজন হইতে পারেন নাই । শৌর্য বীৰ্য্যে শ্রেষ্ঠ ছিলেন বলিয়া কিছুকালের জন্ত তিনি সম্প্রদায়ের নেতা হইতে পারিয়াছিলেন বটে, কিন্তু তাহার চরিত্রে এমন কোন আকর্ষণী শক্তি ছিল না, যদ্বারা তিনি লোকের মনের উপর স্থায়ী প্রভাব বিস্তার করিতে পারেন। গুরু গোবিন্দ্র তাহার স্থায় ধৰ্ম্ম-বলহীন ব্যক্তির উপর সম্প্রদায়ের পরিচালন-ভার প্রদান করিয়াছিলেন বলিয়া কোনো কোনো ইতিহাস প্রণেতা গুরু গোবিন্দের এই নিৰ্ব্বাচনে বিস্ময় প্রকাশ করিয়াছেন । গুরুর পিতৃ-পিতামহ ও পুত্রদের নৃশংস নিধনের প্রতিহিংসা গ্রহণ করিতে যাইয়ু বলা যে বৰ্ব্ববুতার অভিনয় করিয়াছিলেন তাহা স্মরণ করিতেও হৃৎকম্প উপস্থিত হয়, তিনি