প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/১০০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন ఏ\9 বাড়ী পর্য্যন্ত পৌঁছে দিয়ে আসবো। আসুন। এই বলিয়া সে তাহাকে সঙ্গে করিয়া রান্না-ঘরে আনিয়া বসিবার জন্য কল্যকার সেই আসনখানি পাতিয়া দিয়া কহিল, চেয়ে দেখুন সারাদিন ধরে আমি কত রান্না রেখেচি। আপনি না এলে রাগ কোরে আমি সমস্ত মুচিদের ডেকে দিয়ে দিতাম । অজিত বলিল, আপনার রাগ তো কম নয়। কিন্তু তাতে এর চেয়ে খাবারগুলোর ঢের বেশি সদগতি হোতো। । এ কথার মানে ? এই বলিয়া কমল ক্ষণকাল অজিতের মুখের প্রতি চাহিয়া থাকিয়া শেষে নিজেই কহিল, অর্থাৎ, আপনার অভাব নেই,— হয়ত অধিকাংশই ফেলা যাবে,—কিন্তু তাদের অত্যন্ত অভাব । তারা খেয়ে ব চবে। সুতরাং, তাদের খাওয়ানোই খাবারের যথার্থ সদ্ব্যবহার, এই না ? আজিস্ট, ঘাড় নাড়িয়া বলিল, এ ছাড়া আর কি ! কমল বলিল, এ হোলো সাধু লোকদের ভাল-মন্দর বিচার, পুণ্যাত্মাদের ধৰ্ম্ম-বুদ্ধির যুক্তি। পরলোকের খাতায় তারা একেই সার্থক ব্যয় বলে লিখিয়ে রাখতে চায়, বোঝেন যে আসলে ঐটেই হোলো ভূয়ো । আনন্দের সুধাপাত্র যে অপব্যয়ের অন্যায়েই পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে এ কথা তারা জানবে কোথা থেকে ? অজিত আশ্চর্য্য হইয়া কহিল, মানুষের কৰ্ত্তব্য-বুদ্ধির ভেতরে আনুন্দ নেই নাকি ? க কমল কুহিল, না, নেই। কৰ্ত্তাবের মধ্যে যে আনন্দের ছলনা সে দুঃখেরই নামান্তর । ত্বকে বুদ্ধির শাসন দিয়ে জোর করে মানতে হয়। সেই তো বন্ধন তা না হলে এই যে শিবনাথের আসনে এনে আপনাকে বসিয়েছি, ভালবাসার এই অপব্যয়ের মধ্যে আমি আনন্দ