পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/১২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ඌ් Sરર ছিলেন সভা শেষ না হইলে আর তিনি মুখ তুলিলেন না। আরও একটি মানুষ তর্ক-যুদ্ধে তেমন যোগ দিলেন না । ইনি হরেন্দ্র-অক্ষয়ের আলাপআলোচনায় নিত্য-অভ্যস্ত অবিনাশ । ব্যক্তি-বিশেষের চরিত্রের ভাল-মন্দ নিরুপণ করা এই সমিতির লক্ষ্য নয়, এবং এ প্রকার আলোচনায় নর নারী কাহারও কল্যাণ হয়না মালিনী তাহা জানিত। বিশেষতঃ, লেখার মধ্যে আগুবাবুকেও কটাক্ষ করা হইয়াছে, এই কথা কেমন করিয়া যেন বুঝিতে পারিয়া তাহার আতিশয় ক্লেশ বোধ হইল। সভা শেষ হইলে সে নিঃশব্দে নিজের আসন ছাড়িয়াও আসিয়া এই প্রৌঢ় ব্যক্তিটির পাশে বসিয়া লজ্জিত মৃদু কণ্ঠে কহিল, নিরর্থক আজ আপনার শান্তি নষ্ট করার জন্যে আমি দুঃখিত আশুবাবু। আশুবাবু হাসিবার চেষ্টা করিয়া কহিলেন, বাড়ীতেও তো আমি একাই বসে থাকৃতাম । তবু সময়টা কাটুলো । , মালিনী কহিল, সে এর চেয়ে ভাল ছিল। একটু থামিয়া কহিল, আজ উনি নেই, মণি এখান থেকে খেয়ে যাবে। বেশ, আমি ফিরে গিয়ে গাড়ী পাঠিয়ে দেবো । কিন্তু আর সব মেয়েরা ? র্তারাও আজ এখানেই থাবেন। অবিনাশ্ব ও অজিতকে সঙ্গে লইয়া আগুবাবু গাড়ীতে উঠিতে যাইতেছেন, হরেন্দ্র ও অক্ষয় আসিয়া উপস্থিত হইল। তাহাদেরও প্লেীছাইয়া, দিতে হইবে। রাজী হইতে হইল, সমস্ত পথটা আগুবাবু নীরবে বসিয়া রহিলেন। কমলকে উপলক্ষ করিয়া মেয়েদের মাঝখানে অক্ষয় তাহাকে অশিষ্ট কটাক্ষ করিয়াছে এই কথা তাহার নিরন্তর মনে পড়িতে লাগিল । &