প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/১৭৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


›ዓ¢ শেষ প্রশ্ন বোল্ব যে তোমাকে বোঝা বাস্তবিকই কঠিন। একটা কথা তোমাকে বলি কমল । নারীর ভালবাসায় যেমন হৃদয়কে আচ্ছন্ন করে, তার রূপের মোহও বুদ্ধিকে তেমনি অচেতন করে। করুক, কিন্তু একটা যত বড় সত্য, আর একটা তত বড়ই মিথ্যে । তুমি তো জানতে এ আমার ভালবাসা নয়, এ শুধু আমার ক্ষণিকের মোহ। ৭ কি কোরে একে তুমি প্রশ্রয় দিতে উদ্যত হয়েছিলে ? কমল, কুহেলিকা যত বড় ঘটা করেই ছৰ্য্যালোক ঢেকে দিকু তবু সে-ই মিথ্যে । স্বৰ্য্যই ধ্রুব । অন্ধকারে ক্ষণকাল কমল নিৰ্ণিমেষে তাহার প্রতি চাহিয়া রহিল, তারপরে শান্ত কণ্ঠে কহিল, ওটা কবির উপমা অজিতবাবু, যুক্তি নয়, সত্যও নয়। কোন আদিমকালে কুহেলিকার স্বষ্টি হয়েছিল, আজও সে তেমনি বিদ্যমান আছে। সূর্য্যকে সে বারবার আবৃত করেছে৭এবং বারবার আবৃত করবে। সূৰ্য্য ধ্রুব কিনা জানিনে, কিন্তু কুহেলিকাও মিথ্যে বলে প্রমাণিত হয়নি। ও দু’টোই নশ্বর, হয়ত, ও দু'টোই নিত্যকালের । তেমনি, হোকৃ মোহ ক্ষণিকের, কিন্তু ক্ষণও ত মিথ্যে নয়। ক্ষণকালের আনন্দ নিয়েই সে বারবার ফিরে আসে। মালতী ফুলের আয়ু স্বৰ্য্যমুখীর ন্যায় দীর্ঘ নয় ব’লে তাকে মিথ্যে বলে কে উড়িয়ে দেবে ? অাজ একটা রাত্রির মোহকে প্রশ্রয় দিতে চেয়েছিলাম এই যদি আপনার অভিযোগ হয় অজিতবাবু, আয়ুষ্কালের দীর্ঘতাই কি জীবনে এতবড় সত্য ? কথাগুলা যে অজিত বুঝিতে পারিলনা তাহাঁ কিয়াই সে বলিতে লাগিল, আমার কথা আজও বোঝবার ট্ৰিন আপনার তাই, শিবনাথের প্রতি আপনাদের ক্রোধের অবধি নেই, কিন্তু আমি তাকে ক্ষমা করেচি। যা, পেয়েছি তার বেশি কেন পাইনি এ নিয়ে আমার এতটুকু নালিশ নেই।