পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/২৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শেষ প্রশ্ন ২৩৬ করি, সে রোজই এসে একই উত্তর দেয় বাসায় তালাবন্ধ, তার সন্ধান পাইনে। নীলিমা সন্দেহ করছিলেন হয়ত বা তুমি দিন কয়েকের তরে কোথাও চলে গেছো । হরেন্দ্রই ইহার জবাব দিল, কহিল, আর কোথাও না,—এই আগ্রাতেই মুচাঁদের পাড়ায় সেবার কার্য্যে নিযুক্ত ছিলেন। আজ দেখা পেয়ে ধরে এনেচি । আশুবাবু ভয়-ব্যাকুল কণ্ঠে কহিলেন, মুচাঁদের পাড়ায় ? কিন্তু কাগজে লিখচে যে পাড়াটা উজোড় হয়ে গেল। এতদিন তাদের মধ্যেই ছিলে ? একা ? কমল ঘাড় নাড়িয়া বলিল, না, একলা নয়, সঙ্গে রাজেন্দ্র ছিলেন। শুনিয়া হরেন্দ্র তাহার মুখের প্রতি চাহিল, কিছু বলিলনা । তাহার তাৎপর্য্য કરૂં যে, তুমি না বলিলেও আমি অনুমান করিয়াছিলাম। যেথায় দৈবের এতবড় নিগ্রহ সুরু হইয়াছে সে দুর্ভাগাদের ত্যাগ করিয়া সে যে কোথাও এক পা নড়িবেনা এ আমি জানিবনা তো জানিকে কে ? আশুবাবু কহিলেন অদ্ভুত মানুষ এই ছেলেটি। ওকে দ্বতিন দিনের বেশি দেখিনি, কিছুই জানিনে, তবু মনে হয় কি যেন এক স্বষ্টিছাড়া ধাতুতে ও তৈরি । তাকে নিয়ে এলেনা কেন, ব্যাপারগুলো জিজ্ঞাসা করতাম। খবরের কাগজ থেকে তো সব বােঝা যায়ন ? কমল বলিল, না । কিন্তু তার ফিরতে এখনও দেরি আছে। • কেন ? - পাড়াটা এখনো নিঃশেষ হয়নি। যারা অবশিষ্ট আছে তাদের রওনা না করে দিয়ে তিনি ছুটি নেবেননা এই তার পর । আশুর্বাবু তাহার মুখের দিকে চাহিয়া প্রশ্ন করিলেন, তাহলে