প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:শেষ প্রশ্ন.djvu/৩২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*>。 শেষ প্রশ্ন আশুবাবু বলিলেন, হাসির কথা নয়। মেয়েটার স্পৰ্দ্ধায় যেন হতবাকৃ হয়ে গেলাম, নিজেকে সামূলে নিয়ে বোল্লাম, না, এ তাদের অভিপ্রায় নয়, ভোগের মধ্যে তৃপ্তি নেই, কামনার নিবৃত্তি হয়না এই ইঙ্গিতই তারা করে গেছেন। কমল একটুখানি থের্মে বল্‌লে, কি জানি, এমন বাহুল্য ইঙ্গিত তারা কেন করে গেলেন । এ কি হাটের মাঝখানে বসে যাত্রা শোনা না, প্রতিবেশীর গৃহের গ্রামোফোনের বাজনা যে, মাঝখানেই মনে হবে, থাকৃ, যথেষ্ট তৃপ্তিলাভ করা গেছে,—আর না । এর আসল সত্তা তো বাইরের ভোগের মধ্যে নেই,—উৎস ওর জীবনের মুলে, ঐখান থেকে ও নিত্যকাল্প জীবনের আশা, আনন্দ ও রসের যোগান দেয়। শাস্ত্রের ধিক্কার ব্যর্থ হয়ে দরজায় পড়ে থাকে, তাকে স্পর্শ করতেও পারেনা । বোল্লাম, তা হতে পারে, কিন্তু ও যে রিপু, ওকে তো মানুযের জয় করা চাই ? ) 3) কমল বললে, কিন্তু, রিপু বলে গাল দিলেই তো সে ছোট হয়ে যাবেনা। প্রকৃতির পাকা দলিলে সে দখলদার,— তাদের কোন সত্ত্বটা কে, কবে শুধু বিদ্রোহ করেই সংসারে ওড়াতে পেরেছে ? দুঃখের জালায় আত্মহত্যা করাই তো দুঃখকে জয় করা নয় ? অথচ, ঐ ধরণের যুক্তির জোরেই মানুষে অকল্যাণের সিংহদ্বারে শান্তির পথ হাত ড়ে বেড়ায় । শান্তিও মেলে না, স্বস্তিও ঘোচে । শুনে মনে হোলো ও বুধি কেবল আমাকেই খোচা দিলে। এই -বলিয়া তিনি ক্ষণকাল মেীন থাকিয় কহিলেন, কি যে হোলো মুখ দিয়ে হঠাৎ বেরিয়ে গেল,—কমল, তোমার নিজের জীবনটা একবার ভেবে দেখোদিকি । কথাটা ব’লে ফেলে কিন্তু নিজের কাম্বেই বিধ লো, কারণ, কটাক্ষ করার মর্তো কিছুই তো তার নেই,—কমল নিজেও