পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১ংe শ্ৰীমদ্ভগবদগীতা । পথও আছে ; অধিকারীভেদে তাহা জ্ঞানাপেক্ষ স্বসাধ্য । পরিশেষে ইহাও দেখিয়াছিলেন, অথবা দেখাইয়াছেন, জ্ঞানমার্গ, এবং অদ্যমাৰ্গ, পরিণামে সকলই এক । এই কয়টা কথা লইয়া গীত । ত্ৰৈগুণ্যবিষয় বেদ নিস্ত্রৈগুণ্যো ভবাৰ্জ্জুন। নিদ্বন্দ্বে। নিত্যসত্ত্বস্থো নির্ষেীগক্ষেম আত্মবনে ॥ ৪৫ ॥ হে অৰ্জুন ! বেদ সকল ত্রৈগুণ্যবিষয় ; তুমি নিস্ত্রৈগুণ্য হও । নিদ্ব ন্দ্ব, নিত্যসত্ত্বস্থ, যোগ-ক্ষেম রহিত এবং আত্মবান হওঁ । ৪৫ ॥ এই শ্লোকে ব্যবহৃত শব্দগুলির বিস্তৃত ব্যাখা করা প্রয়েtজনীয় বলিয়া অসুবাদে তাহার কিছুই পরিষ্কার করা গেল না । প্রথম, "ত্রৈগুণ্যবিষয়” কি ? সত্ত্ব, রজঃ, তম: এই ত্রি গুণ ; ইহার সমষ্টি ত্রৈ গুণ্য । এই তিন গুণের সমষ্টি কোথায় দেথি ? সংসারে । সেই সংসার যাহার বিষয়, অর্থাৎ প্র পশিল্পিতব্য ( Subject ) তাহাই “ত্ৰৈগুণ্যবিষয় ।” সংসারই বেদের ষিষয়, এইজন্ত বেদ সকল "ত্ৰৈগুণ্যবিষয় ।” শঙ্করাচাৰ্য্য এইরূপ অর্থ করিয়াছেন । তিনি বলেন, “ত্রৈ গুণ্যবিষয়াঃ ত্রৈগুণ্যং সংসারে বিষয়ঃ প্রকাশয়িতব্যে ঘেষাং -তে বেদাস্ত্রৈগুণ্যবিষয়tঃ ” ইহা ও একটু বেদনিন্দার মত শুনায় । অতএব, শঙ্করের টীকাকার আনন্দগিরি প্রমাদ গণিয়া সকল দিকু ষজায় রাখিবার জন্ত লিখিলেন “বেদশবোনাত্রে কৰ্ম্মক ওমেব গৃহতে । তদভ্যাসবতাং তদসুষ্ঠানদ্বারা সংসারঞ্জেীব্যান্ন বিবেকাবসরোহস্তীত্যর্থঃ ।” অর্থাৎ “এখানে বেদ শব্দের অর্থ কৰ্ম্মকাণ্ড বুঝিতে হইবে । যাহারা তাহা অভ্যাস করে, তাহীদের তদকুষ্ঠান