পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৪৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


v শ্ৰীমদ্ভগবদগীতা । of the Vedas by what he here says. He merely advises a careful use of them. Kapila himself admits them as a last source of proof of the truth when others fail.” আমার ন্যায় ক্ষুদ্র ব্যক্তি গীতার মৰ্ম্মার্থ বুঝিতে বা বুঝাইতে যে অক্ষম, তাহা অামি মুক্ত কণ্ঠে স্বীকার করি । তবে “স্বল্পমপ্যস্ত ধৰ্ম্মস্ত” ইত্যাদি বাক্য স্মরণ করিয়াই স্ব কার্য্যে প্রবৃত্ত হইয়াছি । কিন্তু আমি বুঝাইতে পারি বা না পারি, প্রাচীন ভাষ্যকারদিগের যে সকল মহম্বাক্য উদ্ধৃত করিতেছি, অন্ততঃ তাহ হইতে পাঠক ইহার মৰ্ম্মার্থ বুঝিতে পরিবেন এমত ভরসা আছে। কিন্তু তাহাতেও বুঝুন, বা না বুঝুন, পাঠকের কাছে যুক্ত করে এই নিবেদন করি, যে ইংরেজের কাছে যেন গীতাৰ্থ বুঝিবার জন্স না যান । সুশিক্ষিত বাঙ্গালীকে ইংরেজের কৃত গীতামুবাদ পড়িতে দেখিয়াছি বলিয়াই এ কথা বলিতেছি । এবং সেই প্রবৃত্তির বিনাশের জন্তই এতটা ইংরেজি এখানে উদ্ধৃত করিলাম । প্রবাদ আছে যে পুরাণাদি প্রণয়নের পর ব্যাসদেব একদিন সমুদ্রতীরে উপবেশন করিয়া কি চিন্তা করিতেছিলেন । সমুদ্রের বৃহৎ বৃহৎ উৰ্ম্মি-মালার মত র্তাহারও মানস সমুদ্রে গুরুতর চিন্ত উঠিয়া মনকে অশাস্ত করিয়া তুলিয়াছিল। সেই সময়ে দেবর্ষি নারদ তাহার নিকট উপস্থিত হন । নারদের নিকট ব্যাসদেব মনের অবস্থা বিবৃত করেন, বলেন-প্রভু, জগতের ছিতাৰ্থ আমি সাধারণের দুৰ্ব্বোধ্য বেদোক্ত ধৰ্ম্মকে সহজ করিয়া প্রচার করিয়াছি, গল্পচছলে বেদোক্ত উপদেশ লইয়