পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


3$1: শ্ৰীমদ্ভগবদগীতা । বিষয়ে ইন্দ্রিয়ের বিদ্বেষ ঘটে, সেত ভালই—তাহ হইলে আর ইন্দ্রিয়সুখে প্রবৃত্তি থাকিবে না । তবে এ নিষেধ কেন । উপভোগ্যে যে বিদ্বেষ ঘটে না, এমন নহে। রোগীর আহারে অরুচি এবং অলসের ব্যায়ামসুখে অরুচি, উদাহরণ স্বরূপ নিদিষ্ট করা যাইতে পারে । এ সকল শারীরিক স্বাস্থ্যেরও লক্ষণ নহে, মানসিক স্বাস্থ্যেরও লক্ষণ নহে । অনেককে দেখিতে পাই, কিছুতেই পাড়ওয়ালা ধুত পরিবেন না, চটিজুতা নহিলে পারে fদবেন না । ইহাদিগের চিন্তু আজিও বিকারশূন্ত হয় নাই । যে ফিন্‌ফিনে কালাপেড়ে ধুতি নহিলে পরিবে না, তাই দিগের চিত্ত্ব যেমন এখন ও বিকৃত, ইহুদিগের তেমনি । যখন সকলই সমাস জ্ঞান হইবে, তখন ইহারা আর এরূপ আপত্তি করিবে না । এই সকল ক্ষুদ্র উদাহরণে কথাটা যত ক্ষুদ্র বোধ হইতেছে, বস্তু তঃ কথাটা ত ইটা ছোট কথা নহে। একটা বড় উদাহরণ দ্বার। ইহার গৌরব প্রতিপন্ন করিতেছি । রোমান কাথলিক ধৰ্ম্মোপদেষ্টাদিগের ইন্দ্রিয়বিশেষের তৃপ্তির প্রতি বিদ্বেষ—কাৰ্য্যতঃ মা হউক, বিধিতঃ বটে । এইজন্ত তাছাদের মধ্যে চিরকেীমার বিহিত ছিল । ইহার ফলে কিরূপ বিশৃঙ্খল থটিয়াছিল, তাছ। ইতিহাসপাঠক মাত্রেই জানেন । কিন্তু আর্য্য ঋষিরা যথার্থ স্থিতপ্রজ্ঞ – কোন ইন্দ্রিয়ের প্রতি তাহীদের অনুরাগও নাই, বিদ্বেষ ও নাই । অতএব তাতারা ব্রহ্মচর্য্য সমাপন করিয়া, যথাকালে দারপরিগ্রহ করিতেন । কিন্তু তাহারা যেমন বিদ্বেষশূন্ত, ইন্দ্রিয়ের প্রতি তেমনি অনুরাগশষ্ঠ, অতএব কেবল ধৰ্ম্ম তঃ সস্তানেৎপাদল জু দ্যই বিবাহ করতেন । এবং সেই জন্ত স্বভাব-নির্দিষ্ট সাময়িক নিয়মের অতিরিক্ত কথন ইঞ্জিয় চরিতার্থ কfরতে ন ন । _ 警