পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায়। ২০৭ আমি তাহার ফলভোগ করিব না, এই বোধে, তাহার ফলকামনা করেন না। অতএব আত্মতত্ত্বজ্ঞানী নিষ্কাম কৰ্ম্মের মূল । এবং এই তত্ত্বের দ্বারা জ্ঞানযোগের এবং কৰ্ম্মযোগের সমুচ্চয় হইতেছে । জ্ঞান ব্যতীত কৰ্ম্ম নিষ্কাম হয় না, এবং নিষ্কাম কৰ্ম্ম ব্যতীত জ্ঞানের পরিপাক হয় না । নিষ্কাম কৰ্ম্মও কৰ্ম্ম অভ্যস্ত না হইলে ঘটে না । আমরা পরে দেখিব যে কখিত হইতেছে কৰ্ম্ম হইতেই জ্ঞানে আরোহণ করিতে হয় । সে কথা বলিবার কারণ এইখানে নির্দিষ্ট হইল । প্রকৃতেগুৰ্ণসংমূঢ়াঃ সজ্জন্তে গুণকৰ্ম্মস্থ । তানকৃৎস্নবিদে মন্দান কৃৎক্ষবিন্স পিচলিয়েণ্ড ॥ ২৯ ॥ যাখার প্রকৃতির গুণে বিমূঢ়, তাহারা ইন্দ্রিয়ের কৰ্ম্মে অনুরাগবু হু হয় । সেই সকল মন্দবুদ্ধি অল্পজ্ঞান ব্যক্তিদিগকে জ্ঞানিগণ অর্থাৎ তাহাদিগকে কৰ্ম্মফলকামল পরিত্যাগ করিতে বলিলে, তাহ। তাহারা পরিবে না । তবে উপদেশ বা দৃষ্টান্তের ফল এমত ঘটিতে পারে, যে তাহার। সকাম কৰ্ম্ম পৰ্য্যন্ত পরিত্যাগ করিবে । সকাম কৰ্ম্ম অভ্যস্ত না হইলে, নিষ্কাম কৰ্ম্ম সম্ভবে না ; এই জন্য তাহাদিগের বুদ্ধি বিচালিত কর বা বুদ্ধিভেদ জন্মান নিষিদ্ধ হইতেছে। ময়ি সর্ববাণি কৰ্ম্মাণি সংন্তস্তাধ্যাতচেতসা । নিরাশীনিৰ্ম্মমো ভূত্বা যুধ্যস্ব বিগতজ্বরঃ ॥ ৩০ ॥ আমাতে সমস্ত কৰ্ম্ম সমর্পণ করিয়া অধ্যাত্ম-জ্ঞানের দ্বার নিস্পৃহ মমতাশূন্ত ও শোকশূন্ত হইয়। যুদ্ধ কর। ৩০ ।