পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఇst প্রীমদ্ভগবদগীতা । “ঞ্চগৃভ্যো জাতং বৈশুং বর্ণমাহুঃ যজুৰ্ব্বেদং ক্ষত্রিয়স্তাহুর্যেনিম্। সামবৈদে ব্রাহ্মণীনাং প্রস্থতি: ” * অর্থাৎ সামবেদ হইতে ব্রাহ্মণের, যজুৰ্ব্বেদ হইতে ক্ষত্রিয়ের এবং ঋগ্বেদ হইতে বৈপ্তের জন্ম। এখানেও শূদ্রের কথা নাই । উদাহরণ স্বরূপ এই মতগুলি উদ্ধৃত করা গেল। এমন আরও অনেক আছে। সকল উদ্ধৃত করিতে গেলে, পাঠকের বিরক্তিকর হইবে। স্থল কথা হিন্দুশাস্ত্রে চাতুৰ্ব্বৰ্ণ উৎপত্তি সম্বন্ধে নানাপ্রকার মত আছে । শ্ৰীকৃষ্ণও যাহা বলিতেছেন, তাহাও সাধারণ মত হইতে ভিন্ন বলিয়। আপাততঃ বোধ হইতে পারে । তিনি বলেন, যে আমি আমার অঙ্গবিশেষ হইতে বর্ণবিশেষ স্বষ্টি করিয়াছি । তিনি বলেন, গুণকৰ্ম্মের বিভাগানুসারে করিয়াছি। প্রথমে দেখা যাউক গুণ কাঁহীকে বলে । সত্ত্বরজস্তম এই তিন গুণ । তাষ্যকারের বলেন, সত্ত্ব প্রধান ব্রাহ্মণ, তাহাদিগের কৰ্ম্ম শমদমাদি ; সত্ত্বরজঃপ্রধান ক্ষত্ৰিয়, তাহাদিগের কৰ্ম্ম শৌর্য্যযুদ্ধাদি ; রজস্তম:প্রধান বৈশু, তাহাদিগের কৰ্ম্ম কৃষিবাণিজ্যাদি ; তমঃপ্রধান শূদ্র, তাহাদিগের কৰ্ম্ম অন্ত তিন বর্গের সেবা । এইরূপ গুণকৰ্ম্মের বিভাগ অনুসারে স্বঃ করিয়াছি, ইহাই ভগদভিপ্রায় । এক্ষণে, যে জন্মিবে, সে গর্ভে জন্মিবার পুৰ্ব্বেই সত্বগুণাধিক্য, রজোগুণাধিক্য, বা তমোগুণাধিক্য ইত্যাদি প্রকৃতি স্বল্প হয় ? ধিনি বলিবেন, যে আগে জীবের জন্ম, তার পর তাহার সত্ত্ব প্রধানাদি স্বভাব, র্তাহাকে অবশু স্বীকার করিতে কুইবে, যে

  • ગsરામ્યાર s