পাতা:শ্রীমদ্‌ভগবদ্‌গীতা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૬૨ ঐীমদ্ভগবদগীত।। দেহিনোহস্মিন যথা দেহে কৌমারং যৌবনং জরা । তথা দেহান্তরপ্রাপ্তিধরিস্তত্ৰ ন মুহতি ॥ ১৩ ॥ দেহীর যেমন এই দেহে কৌমার ও যৌবন ও বাৰ্দ্ধক্য, তেমনি দেহান্তর-প্রাপ্তি । পণ্ডিত তাহাতে মুগ্ধ হন ন ॥ ১৩ ॥ গীতোক্ত প্রথম প্রধান তত্ত্ব, আত্মার অবিনাশিত ৷ এই শ্লোকে দ্বিতীয় প্রধান তত্ত্ব কথিত হইতেছে—জন্মান্তরবাদ । যেমন এই দেহেতেই আমাদিগকে ক্রমশঃ কৌমার, যৌবন, জরা ইত্যাদি অবস্থাস্তর প্রাপ্ত হইতে হয়, তেমনি দেহান্তে দেহান্তরপ্রাপ্তি অবস্থান্তর প্রাপ্তি মাত্র । অর্থাৎ মৃত্যু কেবল অবস্থাস্তর মাত্র, যেমন কৌমার গেলে যৌবন উপস্থিত হয়, যৌবন গেলে জর উপস্থিত হয়, তেমনি এ দেহ যায়, আর এক দেহ আসে ;– যেমন কৌমার গিয়া যৌবন আসিলে কেহ শোক করে না, যৌবন গিয়া জর আসিলে কেহ শোক করে না, তেমনি এ দেহ গেলে দেহান্তর-প্রাপ্তির বেলাই বা কেন শোক করিব ? এই কথায়, মানিয়া লওয়া হইল যে মরিলেই আবার জন্ম আছে । আত্মার অবিনাশিত। যেমন হিন্দুধৰ্ম্মের প্রথম তত্ব, জন্মাস্তরবাদ তেমনি দ্বিতীয় তত্ত্ব । কিন্তু আত্মার অবিনাশিত যেমন খ্ৰীষ্টিরাদি অন্তান্ত প্রধান ধৰ্ম্মে স্বীকৃত, জন্মান্তরবাদ সেরূপ নহে । পক্ষাস্তরে জন্মস্তিরবাদ যে কেবল হিন্দুধৰ্ম্মেই আছে, এমনও নহে । বৌদ্ধধৰ্ম্মেরও ইহা প্রধান তত্ব, এবং অন্তান্ত ধৰ্ম্মেও ছিল বা আছে । তবে ইউরোপে এ মত অগ্রাহ এবং ইহার কোন বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নাই। এজন্য শিক্ষিত বাঙ্গালি এ মত্ত গ্ৰাহ করেন না ।