পাতা:সাধন-পথ.pdf/৬৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উপদেশামৃত ] W বৈষ্ণব, করিহী, তাহার = সম্মান ৷” শ্ৰীভাগবত একাদশস্কন্ধ “আর্চায়ামের হরয়ে যঃ পূজায়াং শ্রদ্ধয়ে হতে। নিঃতম্ভক্তেষু চান্যেযু স ভক্তঃ প্রাকৃতঃ স্মৃত: ॥”. যে ভক্ত নামাগ্রেয়ে কৃষ্ণভজন করেন। তঁহাকে প্ৰণাম করিয়া সম্মান করিবে: শ্ৰীচরিতামৃত মধ্য ১৬শ পরিচ্ছেদ-“কৃষ্ণনাম নিরন্তর র্যাহার ” বদনে। সে বৈষ্ণবশ্রেষ্ঠ ভজ তাহার চরণে:', শ্ৰীসনাতন শিক্ষায়—“শাস্ত্রযুক্তি নাহি জানে দৃঢ় শ্রদ্ধাবান। মধ্যম। অধিকারী সেই মহাভাগ্যৱান। শ্রদ্ধাবান জন হয় ভক্তি-অধিকারী। উত্তম মধ্যম কনিষ্ঠ শ্রেদ্ধা অনুসারি ॥” শ্ৰীভাগবতে একাদশে-“ঈশ্বরে তদধীনেষু, বালিশেষু দ্বিষৎসু চ । , প্রেম-মৈত্রী-কৃপোপেক্ষাড় যঃ করোতিী সঃ মধ্যমিঃ ৷” মধ্যম ভাগবতের শ্ৰীনামে প্রীতি বিদ্ধিত হওয়ায় তিনি শ্ৰীনামকে পরম প্রীতির সহিত অনুক্ষণ কীৰ্ত্তন-যজ্ঞে:আরাধনা করিয়া ভগৱানে প্রেম স্থাপন করেন। অপ্রাকৃত শ্ৰীনামেঃ অনুক্ষণ প্রীতিবিশিষ্ট হইয়া অনুশীলন করিতে করিতে আপনাকে অপ্রাকৃত বুঝিতে পারেন। অপেক্ষাকৃত স্বল্পরুচিবিশিষ্ট ভক্তকে তাহার অপ্রাকৃত স্বরূপ বুঝাইয়া দেন। - ভগবানে প্রীতিরহিত জনকে, অপ্রাকৃত স্বরূপের অনুভূতিরহিত, কেবল, প্রাকৃত জানিয়া তাহার সঙ্গ ত্যাগ করেন। যে ভক্ত নাম ভজনে স্বরূপ সিদ্ধি লাভ করিয়াছেন, मामग. সেবাদ্বারা অষ্টকালীয় লীলায় ভজন-পারিপাটাে কুশল হইয়া অনন্য এবং কৃষ্ণসম্বন্ধ ব্যতীত দৃশ্যাবস্তুতে, অন্য অস্তিত্ব উপলব্ধি না হওয়ায় কৃষ্ণেতর অনুভব-রাহিত হইয়া, নিন্দাদি। ভেদভােবরহিত, এরূপ মহাভাগবতকে স্বজাতীয় আশয় স্নিগ্ধগণের digitized at BRCIndia.com