প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সিমার - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/১২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নয় ? হিন্দু হলে, ওইরকম ঘরে ফিরে যাওয়ার কথা বলতে না । তুমি ভালো করেই জােন, হাজীর সাথে শিরিনের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। ঘটনা হিন্দুর হলে, শিরিনের পক্ষেই ছাত্রছাত্রী অভিভাবকের সহানুভূতি পাওয়া যেত। হাজীর জবরদস্তিকে তুমি ঘূণা করবে ভেবেছিলাম। কিন্তু এটা তোমারই মধ্যে সংস্কার, জনাৰ্দন, ঘরের বউ ঘরে যাবে। মুসলমানের বউ, হাজীর পত্নী, পরহেজগার । ধন্মে লাগে । তাই না ? ---এসব কথা বলতে পারলে, সাদিক ? আমি অতশত ভেবে বলেনি। আমি হােমটা রক্ষা করতে চাইছি। হােম উঠে যাক, তুমিও চাও না । অভিমান বাজিয়ে কথা বললেন জনাৰ্দন। তারপর কুন্তলের সমর্থন চাইলেন-তুমি কী বল কুন্তল ? কুন্তল এতক্ষণে মুখ খুললেন । বললেন-আমি আর কী বলব ? যার হােম সে-ই তো বলছে । যাকে রাখবার রাখবে, ফেলে দেবার হলে ফেলবে । এটা তো গবমেন্ট-রিকগনাইজড চাকরি নয় । তবে আমার কথা হল, মান-ইজতের কোশ্চেন যখন উঠেছে, সব দিক ভেবেই বলছি, সাদিক ভাই, তুমি আর আমাদের মধ্যে থেকে না। রাখতে হলে দুজনকেই রাখতে হবে। শিরিন তো চলে যাবে, ফিরে যাবে বলে আসেনি। একটু দম ফেলে বললেন কুন্তল-কিন্তু জনাৰ্দন চাইছে, সুচেতা হােমের টীচার হােক। বি. কম. পাশ করেছে, এমন কিছু কোয়ালিফিকেশন নয়। এই সাদিক ডবল এম. এ. সেটা কেন ভুলে যাই ? কোয়ালিফিকেশনের কথা তোল কেন ? একটা সামান্য প্রাইভেট হােম, এখানেও বিদ্যের বহর নিয়ে কথা ? তুমি বলছি, শিরিন অঙ্ক ভুল করে, কোথায় ভুল করে অঙ্ক ? ইলেভেন টুয়েলভ আদি ও নির্ভুল অঙ্ক কষায় । ডিগ্রিটাই সব হয়ে গেল তোমার ? আমি এই কূট তাকে ঢুকতে চাইছিলাম না । সুচেতা আসবে, তার জন্য শিরিনকে যেতে হবে কেন ? ওপরের অঙ্কগুলো সুচেতা করবে। নীচে থাকবে শিরিন । অ্যাকর্ডিং টু কোয়ালিফিকেশন । সমস্যা ছাত্র । ছাত্র কি বাড়ানো যায় না ? সুচেতা জনাের্দনের বন্ধু, বেশ তো বন্ধুর উপকার হােক। সেটাই যখন কথা । জনাৰ্দন খেপে গেলেন, তবু কেঁপো-কেঁপে বললেন-সেটা কোনো কথা নয়, কুন্তল । কে কার উপকার করে ? আমি অত হীন ইচ্ছে নিয়ে কথা তুলি নি । আমি শুধু হােমটাকে বাঁচাতে চেয়েছি। পাশের ঘরে কথা হচ্ছিল শিরিনের বাড়িতে । আমরা এ-ঘরে থেকে সবই মোটামুটি জানােলা দিয়ে শুনছিলাম। মাসি শুয়ে ছিলেন। ভীষণ রোগ হয়ে গেছেন । হঠাৎ দুম করে উঠে পাশের ঘরে চলে গেলেন । আমি সািভয়ে ওঁর Sèvè