পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/১০৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৯০
সিরাজদ্দৌলা।

মুসলমান রাজ্য যেমন ইতিহাসগত, মতিঝিলের রাজপ্রাসাদও সেইরূপ ইতিহাসগত,—তাহাকে আর জীবন্তভাবে দেখিবার উপায় নাই।

 নওয়াজেস মোহম্মদ এইখানে বিপুল অর্থ ব্যয় করিয়া বাসভবন নির্মাণ করিয়াছিলেন। নিজামতের পত্রসংগ্রহ পুস্তকে এখনও যে সকল আবেদনপত্র রক্ষিত হইয়া আসিয়াছে, তাহার মধ্যে একখানি পত্রে প্রকাশ আছে যে, নওয়াজেস মোহম্মদ এইখানে ১৭৪৩ খ্ৰীষ্টাব্দের সম- কালে একটি মসজেদ, একটি মাদ্রাসা এবং একটি অতিথিশালা নির্ম্মাণ করিয়াছিলেন। সে মসজেদটি এখনও রক্ষিত হইয়া আসিতেছে। স্বর্গীয় হাঙ্গামা উপলক্ষে নওয়াজেস মোহম্মদ কখন গোদাগাড়িতে কখন বা মুর্শিদাবাদে অবস্থান করিতেন। তদুপলক্ষেই মতিঝিলে বাসভবন নির্ম্মাণ করিয়াছিলেন। যখন শুনিলেন যে, আলিবর্দ্দী উত্তর কালের জন্য সিরাজদ্দৌলাকেই সিংহাসনের উত্তরাধিকারী মনোনীত করিয়া- ছেন; তখন হইতে নওয়াজে সিরাজের সিংহাসনলাভে বাধা দিবার জন্য বদ্ধপরিকর হন, এবং সেই উদ্দেশ্যে মুর্শিদাবাদেই নিয়ত বাস করিতে আরম্ভ করেন।

 এইরূপে মতিঝিলে নিয়ত বাস করিবার সময়ে, দীনদুঃখী অশ্রু মোচন করিয়া, ক্ষুধার্তের অন্নসংস্থান করিয়া, পীড়িতের ঔদানের ব্যবস্থা করিয়া, স্বভাবসুলভ সদয় ব্যবহারগুণে নওয়াজে অল্পদিনের মধ্যে কি হিন্দু কি মুসলমান সকলের নিকটেই সম্মানভাজন হইয়া উঠিয়াছিলেন। তাহার সুযোগ্য প্রতিনিধিভুভক্ত রাজবল্লভ ঢাকা

 “He was much esteemed by the people for his clemency and charities to the friendless and poor."-Stewarts History of Bengal.