পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/২২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২১৫
নবাব সেনা।

ধনে বংশে বিনাশ করিতে মমতা প্রকাশ করে নাই, তাঁহাদের ইতিহাসে অন্ধকূপহত্যার অতিরঞ্জিত অথবা সর্ব্বথা কাল্পনিক কাহিনী লইয়া সিরাজদ্দৌলার কলঙ্ক রটনা করা বড়ই পরিতাপের বিষয়।

 অন্ধকূপহত্যা সত্য হইলেও সিরাজদ্দৌলার অপরাধ কি? স্বয়ং হলওয়েল সাহেবই লিখিয়া গিয়াছেন যে, ইহার সহিত সিরাজদ্দৌলার কিছুমাত্র সংশ্রব থাকা তিনি বিশ্বাস করেন নাই;—তাঁহার ধারণা এইরূপ যে, নবাব-সেনাদিগের প্রতিহিংসাপ্রবৃত্তির জন্যই এরূপ দুর্ঘটনা সংঘটিত হইয়াছিল।[১] ইতিহাস সঙ্কলন করিবার জন্য আদ্যোপান্ত সকল ঘটনার অনুসন্ধান করিতে গিয়া আমাদিগের এইরূপ ধারণা জন্মিয়াছে যে, নবাব সিরাজদ্দৌলা সর্ব্বজনসমক্ষে হলওয়েলের বন্ধনমোচন করিয়া প্রকৃত বীরপুরুষের ন্যায় তাঁহাকে এবং তাঁহার সঙ্গিগণকে অভয়দান করিয়াছিলেন। অন্যায় উৎপীড়ন করাই যদি সিরাজদ্দৌলার অভিপ্রায় হইত, তিনি কখনও এরূপ ব্যবহার করিতেন না। তাঁহার আশা ছিল যে, হলওয়েল তাঁহাকে গুপ্তধনের সন্ধান বলিয়া দিবেন। এরূপ ক্ষেত্রে যাহাতে হলওয়েলের জীবনসংশয় হইয়া ধনলাভের পথ অবরুদ্ধ হইয়া যায়, সিরাজদ্দৌলা কিছুতেই তাহাতে সম্মতিদান করিতেন না।

 হলওয়েল এবং তাঁহার সঙ্গিগণ সমস্ত দিন বীরের ন্যায় দুর্গরক্ষা করিয়া দৈববিড়ম্বনায় পরাজিত হইয়াছিলেন। তথাপি তাঁহাদিগকে স্বচ্ছন্দভাবে সুবিস্তৃত প্রাঙ্গণে সান্ধ্যসমীরণ উপভোগ করিবার অবসর

  1. একথা সত্য হইলে দুর্গপ্রবেশের সময়েও সিপাহীরা সাহেবদিগকে হত্যা করিতে ত্রুটি করিত না, কিন্তু ষ্টুয়ার্ট বলেন যে,—“The English having surrendered their arms, the Nawab's troops refrained from bloodshed."