পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৩
মহাপাপ।

কাৰ্য্য সাধন করিয়া লইলেন যে, নবাব ক্রুদ্ধ হওয়া দূরে থাকুক, বরং বুদ্ধি কৌশলে বালকের নিকট পরাজিত হইয়া অধিকতর কৌতুক অনুভব করিয়াই রাজধানীতে প্রত্যাগমন করিলেন।

 সিরাজের বুদ্ধিকৌশলের সঙ্গে অর্থবল মিলিত হইয়া নিত্য নূতন উৎসবের সৃষ্টি হইতে লাগিল। সে উৎসবে নৃত্যগীত, সুরা এবং সুরা- সহচরীদিগের প্রাধান্য বাড়িতে লাগিল। অবশেষে গৃহস্থের সুন্দরী ললনার অবগুণ্ঠন ভেদ করিয়াও সিরাজের অনুচরদিগের সূক্ষ্ম দৃষ্টি ধাবিত হইল! অর্থবলে, ছলকৌশলে, প্রলোভনে অনেক গৃহস্থকন্যার সর্ব্বস্বধন লুণ্ঠিত হইল। বাঙ্গালী যাহার জন্য সিরাজদ্দৌলার নাম শুনিলেই শিহরিয়া উঠে, সে এই মহাপাপ;—এই মহাপাপের কথা দিন দিনই চারিদিকে প্রচারিত হইয়া পড়িতে লাগিল। কিন্তু “বৰ্গীর হাঙ্গামার” নিত্য নূতন উপপ্লবে বিপর্যস্ত হইয়া বৃদ্ধ নবাব ইহার গতি- রোধ করিবার কোনই আয়োজন করিতে পারিলেন না। দিন যাইতে লাগিল,—কিন্তু দিন দিনই বিলাস স্রোত খরবেগ ধারণ করিতে লাগিল।