প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:সুকথা - দীনেশচন্দ্র সেন.pdf/১০৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সুকথা হরিহর বাইতি একলক্ষবার হরিনাম জপ করিয়া থাকে ; নামজপ পূর্ণ হইলে যাইবে, ইহা জানাইল । রাজার কোটাল যমদূতের ন্যায় দ্বারে বসিয়া রহিল। হরিহর বাইতির স্ত্রী বিমলা আজি বিমনা ; তাহার স্বামী মিথ্যা সাক্ষ্য দিতে যাইবে, বিমলার মুখখানি ছোট হইয়া পড়িয়াছে-সে যেন কি এক গৌরবস্বগে সুখে ছিল, আজ তাহাকে কে সেই সুখের স্থান হইতে তাড়াইয়া দিবে ! সে কখনও স্বামীর কাৰ্য্যের প্রতিবাদ করে নাই, কিন্তু আজি মনের কথা না। বলিলে বুক ভাঙ্গিয়া যাইতেছে । সে আজ পড়সীদের সঙ্গে স্নান করিতে গোল না, গৃহের এক প্ৰান্তে সাশ্রনেত্ৰে উদাসিনীর মত বসিয়া রহিল ; তাহার কিছু | ভাল লাগিল না-অবশেষে কুম্ভকক্ষে একাকিনী মন্থরগতিতে সে জয়-সরোব্যরে,