পাতা:সোনার তরী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৬২

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


আকাশের চাঁদ।

হাতে তুলে দাও আকাশের চাঁদ—
এই হ’ল তার বুলি।
দিবস রজনী যেতেছে বহিয়া,
কাঁদে সে দু’হাত তুলি’।
হাসিছে আকাশ, বহিছে বাতাস,
পাখীরা গাহিছে সুখে।
সকালে রাখাল চলিয়াছে মাঠে,
বিকালে ঘরের মুখে।
বালক বালিকা ভাই বােনে মিলে
খেলিছে আঙ্গিনা-কোণে,
কোলের শিশুরে হেরিয়া জননী
হাসিছে আপন মনে।
কেহ হাটে যায় কেহ বাটে যায়
চলেছে যে যার কাজে,
কত জনরব কত কলরব
উঠিছে আকাশ মাঝে।
পথিকেরা এসে তাহারে শুধায়
“কে তুমি কাঁদিছ বসি?”
সে কেবল বসে নয়নের জলে
—হাতে পাই নাই শশি!